পাতা:মহাত্মা কালীপ্রসন্ন সিংহ.djvu/১১৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


go शशंद्र कोहीबनङ्ग निरश् । স্বপোচিত শিক্ষা প্রদান করিবার নিমিত্ত ১৮৬১ খৃষ্টাব্দে ২৬শে আগষ্ট দিবসে রাজা স্তার রাধাকান্ত দেব বাহাদুরের ভৰনে এক বিরাট সভা আহুত করেন। কালীপ্রসন্ন যদিও বহু সভাসমিতির সহিত সংশ্লিষ্ট ছিলেন, কিন্তু এ পর্য্যন্ত কোনও রাজনীতিক সভায় তাহাকে বক্তৃতাদি করিতে দেখা যায় নাই। এই রাজনীতিক সভায় তিনি বকৃত করেন। বোধ হয়, ইহাই প্রকাশ্ব সভায় তাহার প্রথম বক্তৃত। ইহা কালীপ্রসঙ্গের চরিত্রের অনুরূপ হইয়াছিল। যে সভায় যোগদান করিতে প্রসিদ্ধ প্রসিদ্ধ ব্যক্তিগণ ভীত ও শঙ্কিত হইয়াছিলেন, সেই সভাতেই নির্ভীক কালীপ্রসল্পের জাতীয়-কলঙ্কমোচন ও জাতীয়সম্মানরক্ষার জন্য অগ্রসর হওয়া অত্যন্ত স্বাভাবিক। অন্যান্য বে সকল স্বাধীনচেতা দেশনায়ক এই সভায় যোগদান করিয়াছিলেন র্তাহাদিগের মধ্যে রাজা স্তার রাধাকান্ত দেব ও রাজা কালীকৃষ্ণ দেব বাহাদুর (সভাপতি), রাজা প্রতাপচন্দ্র সিংহ, কুমার সত্যানন্দ ঘোষাল, বাবু ( পরে মহারাজা) রমানাথ ঠাকুর, বাৰু (পরে মহারাজা স্তার) যতীন্দ্রমোহন ঠাকুর, বাৰু রামগোপাল ঘোষ, বাৰু দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর ও নবাব আসগর আলী খাঁ বাছাছুরের নাম বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। “হুতোম প্যাচা’র লক্সীয় কালীপ্রসন্ন এই সভার বিষয়ে বাহা লিখিয়াছেন, তাহ এ স্থলে উদ্ধারযোগ্য। পাঠকগণ লক্ষ্য করিবেন যে, উহাতে সমাজের আত্মমর্যাদ্ধাহীন ব্যক্তিগণের উপর কিরূপ তীক্ষ বিক্ৰপৰাণ বধিত হইয়াছে —