পাতা:মহারাষ্ট্র-নৃপেন্দ্রকুমার বসু.djvu/১৪০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৫৯ শিবাজীর রাজ্যশাসন-প্রণালী ও শেবন্ধীবন পাইত এবং পালা করিয়া বৎসরে দুই মাস ছুটি পাইত। ৰাবিলদার ব্যতীত আর কেহ পরিবার লইয়া দুর্গে থাকিতে পারিত না । প্রতি নয় জন পদাতুিক সৈষ্ঠের উপর একজন করিয়া নায়ক নিযুক্ত থাকিও ; প্রতি পঞ্চাশ জন সৈষ্ঠের উপর একজন হাবিলদাব থাকত। এক শত শৈষ্ঠের উপরিস্থ কৰ্ম্মচারীকে"জুমলাদার ও এক হাস্কারের উপরিস্থ কর্তাকে এক হাজারী মনসবদার বলা হইত। পাঁচ হাজারী মনুলৰদায় যখন কোন যুদ্ধে প্রধান সেনাপতির পদ গ্রহণ করিতেন, তখন উাহাকে ‘শঙ্কুইনৌবং বলা হইত। অশ্বারোহী দৈদের মধ্যে বীর ও শিীদার দুই छांउँौम्न४णक्करें हिल । शिंशांश्लेौम्न दिशांगउजम ७ श्रुटिलद्र *ब्रिक्लि७ रुचक्रांप्नौ ग्निा १?उ dढ़मल निबच रसँौद्र नछ हिन, ইহাদের দাম ‘পাগাং। প্রতি পাঁচশ জন আশ্বারোহীর উপর একজন করিয়া হাবিলদার, প্রতি একশত পঁচিশের উপর একজন করিয়া জুমলায়ার এবং প্রতি ৬৭৫ এর উপর একজন করিয়া সুবেদার নিযুক্ত থাকত। ৬২৫০ জনের একটা ঘোড়সওয়ারী পল্টনের সেনাপতি ছিলেন পাঁচ হাজার মনূসবদার। মহারাজ শিবাজীর দ্বি-আই-ডি অর্থাৎ গুপ্তচর বিভাগও অত্যন্ত মুদক্ষ ও সুসংবদ্ধ ছিল। এই বিভাগের বড় কর্তা ছিলেন বিহারীঙ্গী নায়েক নামক এক মারাঠা ব্রাহ্মণ। বিদেশীদের গতিবিধি, শত্র-সৈন্তের হালচালের অমুসন্ধান, বিপক্ষদলের 3.