পাতা:মহারাষ্ট্র-নৃপেন্দ্রকুমার বসু.djvu/১৫৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মহারাষ্ট্র 令8及 কিন্তু রামচন্ধ পন্থ এই সঙ্কটকালে বিচ্ছিন্নপ্রায় মহারাষ্ট্র সর্দারদের এক করিবার জন্ত প্রাণপণ চেষ্টা করিলেন। তিনি সীতারায় স্তাহার কেঞ্জ স্থাপন করিয়া, মারাঠী মৈশ্বদিগকে সংহত করিতে লাগিলেন। তারপর কয়েকটি মুঘলঘাট আক্রমণ করিয়া বাহ কিছু ধনরত্ব পাইলেন, সেগুলি সৈন্যদের মধ্যে বিতরণ করিয়া তাহদের উৎসাহ সঞ্জীবিত করিয়ী রাখিলেন । এমন সময় গোলকুও ও বিঙ্গাপুরের মহারাষ্ট্র সেনাদলের নেতৃত্বয় পাঞ্জাজী খেড়ি ফোড়ে ও ধামাজ যাদব র্তাহাজের নিষ্কৰ্ম্ম গৈছদল সমেত আগিয়া রামচন্ত্রের সহিত যোগ দিলেন। মহারাষ্ট্র দলে আবার উদ্দীপনার স্রোত বহিতে লাগিল। মেরী বাঈ, কোলাপুর, পানাল্প, রায়গড় প্রভৃতি স্থানে আবার মহারাষ্ট্রর গৈরিক পতাকা উড়িঙ্গ; আবার চতুর্দিক श्रेऊ टेब्रप्रओद बिभिड़े इइंड शांशिएशन ।। ७शन नशा ख्रिश्नौ হইতে রাজারাম বিশালগড়ে ফিরিয়া আসিলেন। রামচঞ্জ পন্থের পরামর্শে রাজারাম উহার রাজধানী সাতারায় স্থানাগুল্পিত করিলেন। এই সময় ত্ৰিবান্ধুর হইতে বম্বাই পৰ্য্যন্ত সমস্ত উপকুল ভাগ মহারাষ্ট্র নৌবহরের অত্যাচারে অতিষ্ট হইয়৷ উঠিল। পৰ্তুগীজ, দিনেমার, ইংরাজ, ফরাশী ও জিঞ্জরীর লিদীদের জাহাঙ্গে দিনে-দুপুরে মারাঠী বোম্বেটের রাহাঙ্গানি কয়িতে লাগিল । সমুদ্র তীরবর্তী বহু দুর্গ তাঁহাদের হস্তগত হইল । বোম্বাইয়ের নিকট কোলাৰায় শিবাজী একটা নৌবছরের মাড়া স্থাপন করিয়া গিয়াছিলেন ; এখন উহাকে যথেষ্ট সমৃদ্ধ