পাতা:মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় রচনাসমগ্র প্রথম খণ্ড.djvu/৪৯৯

উইকিসংকলন থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


bang labOOKS. in গ্রন্থপরিচয় 8ss “দিবারাত্রির কাব্য’ মানিক বন্দোপাধ্যায়ের তৃতীয় মুদ্রিত গ্ৰন্থ ও দ্বিতীয় উপন্যাস। প্রকাশক ডি এম লাইব্রেরি, ৪২ কর্নওয়ালিশ স্ট্রিট, কলকাতা, পৃষ্ঠা সংখ্যা ৬ + ২০৪। দাম এক টাকা বারো আনা। গ্রন্থের প্রকাশকাল, সজনীকান্ত দাস-কর্তৃক ডিসেম্বর ১৯৩৫ বলে জানা গেছে। বঙ্গশ্ৰী পত্রিকার ১৩৪১ বঙ্গাব্দের বৈশাখ মাসে “একটি দিন’ শিরোনামে মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের যে নাতিদীর্ঘ আখ্যানটি প্রকাশিত হয়, সে বিষয়ে ওই সংখ্যারই সম্পাদকীয়-তে “এই সংখ্যার কয়েকটি লেখা ও লেখক-প্ৰসঙ্গ” শীৰ্ষক রচনার অষ্টম অনুচ্ছেদে জানানো হয়েছিল : “উদীয়মান কথাশিল্পী শ্ৰীযুক্ত মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের একটি দিন' গল্পটি আপনাতে আপনি সম্পূর্ণ হইলেও একটি বৃহৎ গল্পের প্রথম অংশ মাত্র। এই জন্য “অভিশাপ’ উপন্যাসটি চৈত্র সংখ্যায শেষ হইলেও বৈশাখে স্বতন্ত্র উপন্যাস শুরু হইল না ; “একটি দিনের পরবর্তী গল্পগুলিই পর-পর উপন্যাস হিসাবে প্রকাশিত হইবে।” প্রসঙ্গত উল্লেখযোগ্য যে, সজনীকান্ত দাস তীব আত্মস্মৃতি ২য খণ্ডে বঙ্গশ্ৰী সম্পাদনা প্রসঙ্গ আলোচনাসূত্ৰে দিবারাত্রি কাব্য সম্পর্কে এরূপ তথ্য জ্ঞাপন করেছিলেন ‘দ্বিতীয় বৎসবে একটি বিচিত্ৰ উপন্যাস হস্তে র্তাহার [মানিক বন্দ্যোপাধ্যায] শুভাগমন ঘটিল। এই উপন্যাসেব ক্ৰমপরিণতিব কাহিনিও বিচিত্র।. লেখাটির পরিণতি সম্বন্ধে তখনও অব্যাবস্থিত মানিক 'একটি প{' নামীয় একটি সম্পূর্ণ ছােটগল্পের আকারে উপন্যাসটি উপস্থিত করিলেন। পড়িয়াই বলিলাম, করিয়াছ কি ? একটা উপন্যাসেব সম্ভাবনাকে এমনভাবে হত্যা করিবে? বিচলিত মানিক বিদায় লইলেন, আমি 'একটি দিন” সম্পূর্ণ গল্পাকারেই ছাপিয়া দিলাম (বৈশাখ ১৩৪১)। অনতিবিলম্বে মানিক ‘একটি দিন”-এর উপসংহাব ‘একটি সন্ধ্যা’ লইয়া উপস্থিত হইলেন। “একটি সন্ধা’-তেই শেষ হইল না। দুই সংখ্যা পরে সন্ধ্যা “রাত্ৰি’-তে গড়াইল এবং আরও দুই সংখ্যা পরে “রাত্ৰি”-“দিবারাত্রির কাব্য’ হইল। এই উপন্যাসের নাম-পরিবর্তনে মানিকোব মনের গঠনের ছাপ আছে।” --যুগান্তৰ চক্রবর্তী. দিবা।বাত্রিব কাব্য একটি উপন্যাসেব জন্ম প্রবন্ধে উদ্ধৃত, এক্ষণ, ১২শ বর্ষ ১-২ সংখ্যা, পৃঃ ৪৫ ৷৷ বঙগশ্ৰী পত্রিকাব পববতী জ্যৈষ্ঠ সংখ্যায় “একটি সন্ধা’ নামে একই আখ্যানেব দ্বিতীয অংশটি প্রকাশকালে একটি সন্ধ্যা’ শিরোনামেব নিম্নে প্রথম বন্ধনীর মধ্যে “একটি দিন-এর পরবর্তী' কথাকটি উল্লিখিত। আষাঢ় সংখ্যায় পুনশ্চ একটি সন্ধ্যা’ শিরোনামটি ব্যবস্তৃত, প্রথম বন্ধনীর মধ্যে ‘পূর্বানুবৃত্তি’ কথাটি ছিল। বঙগশ্ৰী দ্বিতীয বর্ষের দ্বিতীয় খণ্ডের প্রথম সংখ্যায় (শ্রাবণ) “রাত্রি’ নামাঙ্কিত প্রথম বন্ধনীর মধ্যে পুর্বানুবৃত্তি’ শব্দটিসহ একই আখ্যানের পরবর্তী অংশটি প্রকাশিত। দ্বিতীয় খণ্ডের দ্বিতীয় সংখ্যায (ভাদ্র) পুনশ্চ বাত্ৰি’ নামাঙ্কিত প্রথম বন্ধনীব মধ্যে ‘পূর্বানুবৃত্তি’ শব্দটিসহ পরবর্তী আখ্যানাংশ প্রকাশিত হয়েছিল। দিবারাত্রির কাব্য শিরোনাম তথা নামকরণটি প্রথম পাওয়া গেল। আশ্বিন সংখ্যায়, যথারীতি প্রথম বন্ধনীতে ‘পূর্বানুবৃত্তি' শব্দটিসহ। পর-পর কাৰ্তিক, অগ্রহায়ণ ও পৌষ মাসের সংখ্যা তিনটিতেও দিবারাত্রির কাব্য শিরোনামটি ‘পূর্বানুবৃত্তি’ শব্দটিসহ ব্যবহৃত। পৌষ সংখ্যায় আখ্যানটি সম্পূর্ণ হয়, প্রকাশিত এই শেষ অংশটির শেষে ‘সমাপ্ত’ শব্দটির উল্লেখ ছিল। ডি এম লাইব্রেরি প্রকাশিত গ্রন্থাকার সংস্করণের আখ্যাপত্রটিতে উপন্যাসটির নাম ছাপা হয়েছিল যেভাবে, তা লক্ষণীয়-প্রথম পঙক্তিতে “দিবারাত্রির কাব্য’ ও কোলনচিহ্ন ব্যবহার করে দ্বিতীয় পঙক্তিটিতে একটি বস্তুসঙ্কেতের কল্পনামূলক' এবং তৃতীয় পঙক্তিতে ৰূপক কাহিনী’ বেশ বড়ো হরফেই মুদ্রিত হয়েছিল। শিরোনামবিহীন ও তারিখহীন একটি ভূমিকা-ধরনের রচনায় মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় লিখেছিলেন :