পাতা:মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় রচনাসমগ্র প্রথম খণ্ড.djvu/৫২৮

উইকিসংকলন থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


bang labOOKS. in (: ՀԵ মানিক রচনাসমগ্র হেব্বস্ব বলিল, “তা নয়। মাতাজী। মেয়েটি কিছু মনে করবে বলে আমি তাকাই নি।” ‘আমিও তো তাই বলছি রে। মেয়েটি মনে করবে, তার আত্মীয় মনে করবে, পাড়াপ্রতিবেশী মনে করবে, সংসারের সব লোক মনে করবে। শুধু তাকানো নয়। বাবা, আরও হাজাব খুটিনাটিতে বিশ্ৰী কিছু মনে করবে বলে সংসারের লোক ওৎ পেতে আছে। মেয়ে পুরুষের সম্পর্ক ওদের ধৰ্ম্মকৰ্ম্ম ধ্যান ধারণা—সদাই সচেতন হয়ে আছে, ভুলতে আর পারে না এক মিনিটেব জন্যে। দূর দুব, সংসারে আবােব ভদ্রলোকে থাকে।” “কিন্তু মাতাজী, কি নিয়ে মানুষ। তবে সংসাবে থাকবে ?” সংসার সম্বন্ধে স্থূল কথাটা মাতাজী মোটামুটি বোঝেন, এ প্রশ্নের সদুত্তর দিবার সাধ্য তাহার নাই। কতগুলি বাজে বকিলেন মাত্র। স্বামিজী হয়ত কিছু বলিতে পারিতেন। SS-SOS মাতাজী বলিলে- “পঞ্জিকায় শুধু সপ্তমী লিখেছে-আমাদের মতে কাল ছিল দিবা-সপ্তমী। চতুৰ্দশ ভূঞ্চল থেকে চতুৰ্দশ দেবতা সাতটি জোড় বেঁধে ওইদিন মৰ্ত্তে আসেন। ভুবন চতুৰ্দশাৎ দেবতাঃ চতুৰ্দশঃ মৰ্ত্তমভিরামা৩ে দিবাসপ্তম্যাং তিৰ্থেী ! চতুৰ্দশ বর্ষীয়া অনুঢ়া কন্যাকে সঙ্গে নিয়ে আমন দিনে বাড়ীর বাব হলে কি বক্ষণ আছে ? কি হয। প --না, চতুৰ্দশী কন্যাযুতা গৃহহীনস্য বিনাশঃ । বাড়ী ছেডে বাব হওয়া গৃহহীন হওযা ছাড়া কি মা ?” গৃহিণী সভযে বলিলেন, “কি সৰ্ব্বনাশ ! আব্ব কবালী নচ্ছাব পাঁজি দেখে বললে যাত্রা শুভ ” কওঁ বলিলেন, “শুধু কবালী কেন-আমিও দেখেছি, কাল আব আজ যাত্রা শুভ।” গৃহিণী বলিলেন, “তবে? পকেট পাঁজি নয়-আট আনা দামের ডিকটবি পাঁজি, তাতে কি মিথ্যা লিখলে ?” মাতাজী মৃদু মৃদু হাসিলেন, বলিলেন, ‘পজিতে মিথ্যে লিখবে কেন বাছা ? কাল আল আজ যাত্ৰা প্রশস্তু।-- কিন্তু সবাই এবং পক্ষে কি? তা নয়। চোদবছরের আইবুড়ো মেয়ে সঙ্গে নিয়ে কাল যারা বাড়ী ছেড়ে বেরিযেছে। তাদেব একটা ভযানক বিপদ ঘটবেই। কি যোগাযোগ কি সংঘটন হয সব কি পাঁজিতে লেখা থাকে ৮ জানাপে BBBS BDBBD YBBB DS BBB DBBLBBB BBBB DS BBBD BB gBB BBB BBB BDBDB BBDBD DDS পাঁজিতে লেখা শুভদিনে যাত্রা করে কতলোকেৰ কত বিপদ ঘটেছে। সে কি আমনি ঘটে? কি কাবণে কাল পক্ষে শুভদিনও দাৰুণ অশুভদিনে দাঁড়াতে পাবে কে তা বলতে পাবে। তা না হলে সংসালে এত শোকতাপ কেন ? দৈবশক্তি বা কাছে অজ্ঞান মানুষ বড় দুৰ্ব্বল বড় অসহায। ভাল ভেবে মানুষ কাজ কবে, কোথা থেকে মন্দ এসে পণ্ডে । গৃহিণী কয়টা শোক পাইয়াছিলেন কে জানে, শোকে অভিভূত হইয়া বলিলেন, “তা সত্যি মা।” একটি অল্পবয়সী বিধলা মেয়ে উদাস নযনে জানালার বাহিবে চাহিযা বসিয়াছিল, তাহাব দিকে দৃষ্টিপাত কবিয়া মাতাজী কতক্ষণ স্তব্ধ বহিলেন, শেষে বলিলেন, “আহারে, এই বয়সে মাযেল আমাৰ কপাল পুড়েছে। কি তুচ্ছ ঐটিতেই এমন দােগা তুই দিলি তারা? অজ্ঞান অবোধ সন্তানেব সঙ্গে এ তোব কেমন খেলা জননী ?” দীর্ঘনিশ্বাস ফেলিয়া মাতাজী একেবালে ধ্যানস্থ হইয়া পড়িবার উপক্ৰম কবিলেন। গৃহিণী কঁদিমা বলিলেন, “কি ক্রুটি হয়েছিল মা? কি জন্যে বাছার আমার এমন দশা হল ?” মাতাজীর দুই স্তিমিত নযনে বিশ্বের করুণা জড়ো হইয়াছে—সে খাঁটি জিনিষ, ছলনার সঙ্গে তাহাব কোন সম্পর্ক নাই। ‘হঁ্যা মা, কুষ্ঠি মেলালি, শুভ লগ্নে কন্যা পাত্ৰস্থ কবলি, এতই যদি করলি উত্তর বাতাসটুকুকে আটকালি না। BeDBDBO DBBD BB BD BBDBB BBBB BB BBB BBB BBB BBB BBBBB LBL BBBD BB BgB tD BD তোর মেয়ে স্বামী সোহাগিনী হয়ে থাকত!” গৃহিণী বিহুলোব মত বলিলেন, ‘শ্রাবণ মাসে উত্ত্বরে বাতাস কোথা থেকে এল মা ? আমরা অজ্ঞান অন্ধ, বুঝিয়ে দিন মা আমাদের। আপনি সব জানেন-' বলিয়া গৃহিণী ঢিপ করিয়া মাতাজীর পায়ে প্ৰণাম করিলেন। কৰ্ত্ত বুড়ামানুষ, উত্তেজনায় তিনি কঁাপিতে লাগিলেন। মাতাজী বুলিলেন, “শীতকালে যে উত্তবে বাতাস আসে সে দোষের নয় বাহু। হিমাদ্রিশিখরাসীনা পাৰ্ব্বতী পরমেশ্বরেী, বাবা মহাদেবেব রাজ্য থেকে যে বাতাস আসে তাতে কি কারো অমঙ্গল হয় ? বর্ষাকালে বাতাস ‘মেঘসংস্পৰ্শী’-সে। বাতাসের কোন দিক নেই। উত্তরদিকের ‘গবাক্ষ’ কিনা জানালা হোক দরজা হোক, তাই দিয়ে যখন এ বাতাস দক্ষিণাভিমুখী গতি প্রাপ্ত হয়ে ঘরে ঢেকে তখনি গৃহস্থের অমঙ্গল হয়।” “মাগো ! উত্তরদিকের একটা জানালা তো খোলাই ছিল! গরম বলে শ্ৰীনাথ সেই জানালার ধারেই তো বসে ছিল অনেকক্ষণ!”