পাতা:মুর্শিদাবাদ কাহিনী.djvu/৩৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।
৩৩৮
৩৩৮
মুর্শিদাবাদ-কাহিনী


মুর্শিদাবাদ-কাহিনী שסס প্রকৃতির পরিচয় প্রদান করে নাই । সুসভ্য ইংরেজ ! আজ তোমরা মুসলমান রাজত্বের নিন্দা করিয়া, জগতে প্রতিষ্ঠা লাভ করিয়া থাক ; কিন্তু তোমাদের সেই পূর্বকালীন বণিগ-রাজত্ব যাহার ভিত্তিতে স্থাপিত, তাহা মনে করিতে গেলে ভয় ও লজ্জায় হৃদয় অবনত হইয়া পড়ে এবং আমাদিগেরও শত ধিক্কার যে, দেবীসিংহের জাতি বলিয়া আজিও আমাদিগকে পরিচয় দিতে হইতেছে । ভারতের ভাগ্য-পরীক্ষাস্থল সুপ্রসিদ্ধ পাণিপথ-ক্ষেত্রে দেবীসিংহের পূর্ব-নিবাস । তারাচাঁদসিংহ নামক দেবীসিংহের এক পূর্বপুরুষ হইতে, তাহদের বংশের ধারাবাহিক বিবরণ অবগত হওয়া যায়। ইহারা জাতিতে আগরওয়ালা বৈশ্য ; ব্যবসায়বাণিজ্য ইহাদের জীবিকার উপলক্ষ ছিল । তারাচাদের পৌত্র অজিতসিংহ মোগল রাজত্বকালে রায় উপাধি লাভ করেন । অজিতসিংহের জ্যেষ্ঠপুত্র অমরসিংহের চারি পুত্র হয় ; কনিষ্ঠ দেওয়ালীসিংহ হইতে দেবীসিংহের উৎপত্তি ; দেবীসিংহ দেওয়ালীর দ্বিতীয় পুত্র । জ্যেষ্ঠের নাম তুলসীরামসিংহ ও কনিষ্ঠের নাম বাহাদুরসিংহ । যৎকালে মুশিদাবাদ আপন গৌরবপ্রভায় মোগল-সাম্রাজ্যের রাজধানী দিল্লীনগরীকেও লজ্জা প্রদান করিয়াছিল, ব্যবসায়বাণিজ্যে মুশিদাবাদ ভারতবর্ষের সর্বপ্রধান স্থান অধিকার করিয়া বসে, সেই সময়ে দেবী সুদূর পাণিপথ হইতে মুর্শিদাবাদে উপস্থিত হন । বলা বাহুল্য, ব্যবসায়কার্যে উন্নতিসাধন তাহার আগমনের প্রধান উদ্দেশ্য ছিল । তিনি আসিয়া দেখিলেন যে, ইউরোপীয় ও দেশীয় বণিগগণে মুর্শিদাবাদের চারিদিকৃ পরিপূর্ণ-অনন্তমুখ বাণিজ্যস্রোত অবিরাম গতিতে প্রবাহিত হইতেছে। দেবী সেই বিরাট প্রবাহে আপনার জীবনস্রোত মিশাইতে ইচ্ছা করিলেন ; কিন্তু সে স্রোত প্রবলবেগে বহিতে পারিল না ; ব্যবসায়কার্যে র্তাহার সুবিধা হইল না । ভিন্ন ভিন্ন জাতির অশেষ প্রকার উদ্যম, চেষ্টা অতিক্রম করা, তাহার পক্ষে অসাধ্য হইয়া উঠিল । তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কৃতকার্য হইতে না পারায়, ক্ৰমে ক্লমে তাহার ব্যবসায়ের ক্ষতি হইতে লাগিল। তখন অগত্য তিনি ব্যবসায়ের আশা পরিত্যাগ করিয়া কর্মের চেষ্টায় ফিরিতে লাগিলেন । বাঙ্গলার রাজধানীতে কর্মের অভাব কোথায় ? তৎকালে যে একটু বিশেষভাবে চেষ্টা করিয়াছে, ভাগ্যলক্ষী তাহারই প্রতি প্রসন্ন হইয়াছেন । তাহারই কৃপাদৃষ্টিতে দেবীসিংহের ভবিষ্যৎ রুমশঃ উজ্জ্বলতর হইয়া উঠে । যে সময়ে দেবীসিংহ কর্মের চেষ্টায় ফিরিতেছিলেন, সে সময়ে মুসলমান রাজত্বের অবসান ও ইংরেজরাজত্বের সূত্রপাত হইয়াছে। সিরাজউদ্দৌলা, মীরজাফর, মীর কাসেমের নাম বিস্মৃতিগর্ভে ডুবিতে আরম্ভ করিয়াছে। কোম্পানীর রাজ্যগ্রহণলালসা বলবতী ছুওয়ায় উহার নামমাত্র বাদশাহ শাহ আমলের নিকট হইতে বাঙ্গলা, বিহার, উড়িষ্যার দেওয়ানী, গ্রহণ করিলেন । নজমউদ্দৌলা নামেমাত্র নাজিম থাকিয়া, ইংরেজ কোম্পানীর বৃত্তিভোগী হইয়া দাড়াইলেন। ক্লাইবসাহেব মহানন্দে রাজস্বসংগ্রহের চেষ্টা স্তুরত্বে । তাহার মনে হইল যে, দেশীয়গণ ব্যতীত বিদেশীগণের দ্বারা আদায়ের সুবিধা নাই ; তাই তিনি মুর্শিদাবাদ ও পাটনায় দুই জন