পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/১০১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সমালোচনা শুনিব শিখরে বসি পার্থী গায় গান, নদীর শবদ সাথে মিশাইয়া তান ; দেখিব চাহিয়া সেই তটিনীর তীরে রাখাল গরুর পাল চরাইয়া ফিরে । রচি দিব গোলাপের শয্যা মনোমত ; সুরভি ফুলের তোড়া দিব কত শত ; গড়িব ফুলের টুপি পরিবি মাথায়, আশঙিয়া রচিয়া দিব গাছের পাতায় । লয়ে মেষশিশুদের কোমল পশম বসন বুনিয়া দিব অতি অনুপম ; সুন্দর পাদুকা এক করিয়া রচিত, খাটি সোনা দিয়ে তাহা করিব খচিত । কটিবন্ধ গড়ি দিব গাথি তৃণ-জাল, মাঝেতে বসায়ে দিব একটি প্রবাল । এই সব সুখ যদি তোর মনে ধরে হ’ আমার প্রিয়তমা, আয় মোর ঘরে । হস্তি-দন্তে গড় এক আসনের পরে, আহার আনিয়া দিবে দু-জনের তরে, দেবতার উপভোগ্য, মহার্ঘ্য এমন, রজতের পাত্রে দোহে করিব ভোজন । রাখাল-বালক যত মিলি একত্তরে নাচিবে গাইবে তোর আমোদের তরে। এই সব স্থখ যদি মনে ধরে তব, হ’ আমার প্রিয়তমা, এক সাথে রব’ । ԵրՏ