পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/১৮৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মন্ত্রি অভিষেক SW2(? অব্যক, নতুবা উপকারের গ্রাসও গলাধঃকরণ করা কঠিন হইয়া উঠে এবং তাহা অন্তরে অন্তরে অন্তর্দংশ বেদন আনয়ন করে । কিন্তু আমাদের বিরোধী পক্ষীয় ইংরাজি সম্পাদকের অতিরিক্ত বুদ্ধিপ্রভাবে বলিতেছেন যে, ভারতবর্যায়ের প্রাচ্য জাতীয় অতএব তাহাদের হস্তে মন্ত্রি অভিষেকের ভার দিলে তাহারা নিজেই অসন্তুষ্ট হইবে। আমাদের ইংরাজি সম্পাদক মহাশয় যদি আমার ধৃষ্টত মার্জন করেন ত নির্ভয় হইয়া একটা কথা বলি। আমার বিশ্বাস আছে হাস্যরসকুতুহলী ইংরাজ জাতি হাস্যাম্পদ হইতে একান্ত ডরাইয়া থাকেন। কিন্তু উপস্থিতক্ষেত্রে তাহার আশ্চৰ্য্য ব্যতিক্রম দেখা যাইতেছে। যখন সমস্ত ভারতবর্ষ কনগ্রেসযোগে ইংলণ্ডের নিকটে নিবেদন করিতেছেন যে স্বাধীন মন্ত্রিনিয়োগের অধিকারই তাহাদের সর্বপ্রধান প্রার্থনা এবং সেই অধিকার প্রাপ্ত হইলেই তাহাদের প্রধান অসন্তোষের কারণ দূর হইবে তখন কোন লজ্জায় হাস্যরসতত্ত্বের সমুদয় নিয়ম বিশ্বত হইয়া ইংলণ্ডবাসী সম্পাদক এ কথা বলেন যে এই গৌরবজনক অধিকার লাভে সফল হইলেই প্রাচ্য ভারতবর্ষ অসন্তুষ্ট হইবে ! এ বিষয়ে পূৰ্ব্ব পশ্চিমের কোন মতভেদ থাকিতে পারে না যে, ব্যথিত ব্যক্তি নিজের বেদনা যতটা বোঝে, স্বয়ং ইংরাজ সম্পাদকও এতটা বোঝেন না । অতএব আমাদের সন্তোষ অসন্তোষের সম্বন্ধে আমরাই প্রামাণ্য সাক্ষী ; ইংরাজ সম্পাদকের প্রতিবাদ এ স্থলে কিঞ্চিৎ অসঙ্গত বলিয়া মনে হয় । তাহারা বলেন যুদ্ধপ্রিয় জাতিরা এই মন্ত্রিঅভিষেকপ্রথায় ক্ষুব্ধ হইবেন। কেন হইবেন ? তাহাদের অধিক পরিমাণে তেজ আছে বলিয়াই কি তাহারা রাজনীতি-ক্ষেত্রে অধিকতর স্বাধীনতা চাহেন না ? স্বাধীন অধিকার কি তবে কেবল যুদ্ধপ্রিয় জাতির পক্ষেই অরুচিকর ? আমরা যুদ্ধপ্রিয় নহি কিন্তু অকুমান করি যোদ্ধজাতির প্রতি এরূপ কলঙ্ক আরোপ করা সম্পূর্ণ অমূলক ও অন্যায়। তবে যদি এ কথা বল, আমাদের যোদ্ধজাতীয়েরা এখনো এতটা দূর বাকৃপটুত লাভ করেন নাই যাহাতে করিয়া মন্ত্রিসভায় বসিয়া পরামর্শ দান করিতে পারেন, সুতরাং সেখানে আসন অধিকার করিতে র্তাহারা সক্ষম হইবেন না, এবং সক্ষম-শ্রেণীয়দের প্রতি র্তাহাদের অস্থয়ার উদ্রেক হইবে ; তাহার আর কি প্রতিবাদ করিব ? এ কথা কতকগুলি সঙ্কীর্ণ হৃদয়ের ক্ষুদ্রকল্পনাপ্রস্থত । ইহাতে আমাদের বীর-জাতিদিগকে অপমান করা হয় । র্তাহাদের মধ্যে যোগ্য ব্যক্তি নাই এবং তঁাহাদের জাতীয়েরা যোগ্য ব্যক্তিকে চিনিতে পারে না, দুই চারিজন ইংরাজের মুখের কথাকে ইহার প্রমাণ বলিয়া ধরা যাইতে পারে না। আরেকটা কথা জিজ্ঞাসা করি ইংরাজের স্বশাসনে আমাদের যোদ্ধৃবর্গের যুদ্ধ