পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৩৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আলোচনা »ዓ তাহার নিকট হইতে মৃত্যুও তত দূরে । অতএব এতখানি বিশালতার এক মুহূর্তের মধ্যে সৰ্ব্বতোভাবে অস্তধর্ণন এ কখনো সম্ভবপর নহে। প্রেম আমাদের হৃদয়ের ভিতর হইতে এই কথা বলিতেছে, তর্ক যাহা বলে বলুক। অতএব দেখা যাইতেছে, প্রেম আসিয়াই আমাদের শিক্ষা দেয় এ জগৎ সত্য এবং প্রেমই বলে সত্য উপরে ভাসিতেছে না, সত্য ইহার অভ্যস্তরে নিহিত আছে । যাহা হউক পথ দেখিতে পাইলাম, আশা জন্মিতেছে ক্রমে তাহাকে পাইতেও পারি। ইহাকে অবিশ্বাস করিয়া মরণকে বিশ্বাস করিলে কি সুখ হৃদয়ের সভ্যতার যতই উন্নতি হইবে এই মরণের প্রতি বিশ্বাস ততই চলিয়া যাইবে, জীবনের প্রতি বিশ্বাস ততই বাড়িবে। ভাল ক’রে পড়িব এ জগতের লেখা । শুধু এ অক্ষর দেখে করিব না ঘৃণ । লোক হ’তে লোকাস্তরে ভ্ৰমিতে ভ্ৰমিতে, একে একে জগতের পৃষ্ঠা উলটিয়া, ক্রমে যুগে যুগে হবে জ্ঞানের বিস্তার ! বিশ্বের যথার্থ রূপ কে পায় দেখিতে ! আঁখি মেলি চারিদিকে করিব ভ্রমণ, ভাল বেসে চাহিব এ জগতের পানে, তবে ত দেখিতে পাব স্বরূপ ইহার ! ജ്ജ് ধৰ্ম্ম । প্রেমের যোগ্যতা । একেবারেই প্রেমের যোগ্য নহে এমন জীব কোথায়! যত বড়ই পাপী অসাধু কুত্ৰ সে হউক না কেন, তাহার মা ত তাহাকে ভালবাসে। অতএব দেখিতেছি, তাহাকেও ভালবাসা যায়, তবে আমি ভালবাসিতে না পারি সে আমার অসম্পূর্ণতা।