পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/৫৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


कदि-कांश्निौ না নড়ে হৃদয় তার, না পড়ে নিশ্বাস । দেখিল না, ভাবিল না, কহিল না কিছু, যেমন চাহিয়া ছিল রহিল চাহিয়া । নিদারুণ কি যেন কি দেখিয়! তরাসে নয়ন হইয়া গেল আচল পাষাণ । কতক্ষণে কৰি তবে পাইল চেতন, দেখিল তুষারশুভ্ৰ নলিনীর দেহু হৃদয়জীবনহীন জড় দেহ তার অনুপম সৌন্দর্য্যের কুস্বম-আলয়, হৃদয়ের মরমের অাদরের ধন— তৃণ কাষ্ঠ সম ভূমে যায় গড়াগড়ি ! বুকে তারে তুলে লয়ে ডাকিল "নলিনী", হৃদয়ে রাখিয়া তারে পাগলের মত কবি কহিল কাতর স্বরে “নলিনী” “নলিনী” । স্পন্দহীন, রক্তহীন অধর তাহার चक्षौद्र श्ब्रा चम कब्रिज कूश्न । তার পর দিন হোতে সে বনে কবিরে আর পেলে না দেখিতে কেহ, গেছে সে কোথায় ! ঢাকিল নলিনীদেহ তুষারসমাধি— ক্রমে সে কুটারখানি কোথা ভেঙ্গে চুরে গেল, ক্রমে সে কানন হোলো গ্রাম লোকালয়, সে কানমে— কবির সে সাধের কাননে অতীতের পদচিহ্ন রহিল ন৷ আর ।