পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্দশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ఏ8 ब्रदौटश-बछनांवलौ জানি মনে, ক্ষণে ক্ষণে চমকি উঠিবে মোর হিয়া তুমি আস নাই বলে, অকস্মাৎ রহিয়া রহিয়া করুণ স্থতির ছায়া মান করি দিবে সভাতলে আলাপ আলোক হাস্ত প্রচ্ছন্ন গভীর অশ্রুজলে । আজিকে একেলা বসি শোকের প্রদোষ-অন্ধকারে, মৃত্যুতরঙ্কিণীধার+মুখরিত ভাঙনের ধারে তোমারে শুধাই,—আজি বাধা কি গো ঘুচিল চোখের স্থলদর কি ধরা দিল অনিন্দিত নন্দন-লোকের আলোকে সম্মুখে তব, উদয়শৈলের তলে আজি নবস্বৰ্ষ বন্দনায় কোথায় ভরিলে তব সাজি নব ছন্দে, নূতন আনন্দগানে ? সে-গানের স্বর লাগিছে আমার কানে অশ্রুসাথে মিলিত মধুর প্রভাত-আলোকে আজি ; আছে তাহে সমাপ্তির ব্যথা, আছে তাহে নবতন আরম্ভের মঙ্গল-বারতা ; আছে তাহে ভৈরবীতে বিদায়ের বিষন্ন মূছন, আছে ভৈরবের স্বরে মিলনের আসন্ন অর্চনা । যে খেয়ার কর্ণধার তোমারে নিয়েছে সিন্ধুপারে আষাঢ়ের সজল ছায়ায়, তার সাথে বারে বারে হয়েছে আমার চেনা ; কতবার তারি সারিগানে নিশাস্তের নিদ্রা ভেঙে ব্যথায় বেজেছে মোর প্রাণে অজানা পথের ডাক, সূর্যাস্তপারের স্বর্ণরেখা ইঙ্গিত করেছে মোরে । পুনঃ আজ তার সাথে দেখা মেঘে-ভরা বৃষ্টিঝর দিনে । সেই মোরে দিল আনি ঝরে-পড়া কদম্বের কেশর-সুগন্ধি লিপিখানি তব শেষ-বিদায়ের । নিয়ে যাব ইহার উত্তর নিজ হাতে কৰে আমি, ওই খেয়া পরে করি ভর,