পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্দশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শাভিনিকেতন 300 স্বতরাং সেই তার বিনয়। তাই সে সমূজের সঙ্গে মিলিত হয়ে ক্রমাগতই সমুদ্র হয়ে যাচ্ছে—তার আর সমূদ্র হওয়া শেষ হল না । । * * বৰত চরমে সমুদ্র হতে থাকা ছাড়া তার জার গতিই নেই। তার দুই দীর্ঘ উপকূলে কত খেত কত শহর কত গ্রাম কত বন আছে তার ঠিক নেই। নদী তাদের তুষ্ট করতে পারে পুষ্ট করতে পারে, কিন্তু তাদের সঙ্গে মিলে যেতে পারে না। এই সমস্ত শহর গ্রাম বনের সঙ্গে তার কেবল আংশিক সম্পর্ক। নদী হাজার ইচ্ছা করলেও শহর গ্রাম বন হয়ে উঠতে পারে না । সে কেবল সমুদ্রই হতে পারে। তার ছোটো সচল জল সেই বড়ো আচল জলের একই জাত। এইজন্তে তার সমস্ত উপকূল পার হয়ে বিশ্বের মধ্যে সে কেবল ওই বড়ো জলের সঙ্গেই এক হতে পারে। সে সমুদ্র হতে পারে কিন্তু সে সমুদ্রকে পেতে পারে না । সমুদ্রকে সংগ্রহ করে এনে নিজের কোনো বিশেষ প্রয়োজনে তাকে কোনো বিশেষ গুহা গহবরে লুকিয়ে রাখতে পারে না, যদি কোনো ছোটো জলকে দেখিয়ে সে মূঢ়ের মতো বলে, ই সমুদ্রকে এইখানে আমি নিজের সম্পত্তি করে রেখেছি তাকে উত্তর দেব, ও তোমার সম্পত্তি হতে পারে কিন্তু ও তোমার সমুদ্র নয়। তোমার চিরন্তন জলধারা এই জলাটাকে চায় না, সে সমুদ্রকেই চায়। কেননা সে সমূদ্র হতে চাচ্ছে সে সমুদ্রকে পেতে চাচ্ছে না। আমরাও কেবল ব্ৰহ্মই হতে পারি আর কিছুই হতে পারি নে। আর কোনো হওয়াতে তো আমরা সম্পূর্ণ হই নে। সমস্তই আমরা পেরিয়ে যাই ; পেরোতে পারি নে ব্ৰহ্মকে। ছোটো সেখানে বড়ো হয়। কিন্তু তার সেই বড়ো হওয়া শেষ হয় না, এই \डांद्र यांनाम । আমরা এই আনন্দেরই সাধনা করব। আমরা ত্ৰক্ষে মিলিত হয়ে অহরহ কেবল ব্ৰহ্মই হতে থাকব। যেখানে বাধা পাব লেখানে হয় ভেঙে নয় এড়িয়ে যাব। অহংকার, স্বাৰ্থ এবং জড়তা যেখানে নিষ্ফল বালির শু,প হয়ে পথরোধ করে দাড়াৰে সেখানে প্রতিমুহূর্তে তাকে ক্ষয় করে ফেলৰ । i * সকালবেলায় এইখানে বলে যে একটুখানি উপাসনা করি এই দেশকালবদ্ধ আংশিক জিনিসটাকে আমরা যেন সিদ্ধি বলে জয় না করি। একটু রন, একটু ভাব, একটু চিন্তাই ব্ৰহ্ম নয়। এইটুকুমাজকে নিয়ে কোনোনি জমছে কোনোদিন জমছে না বলে খুত খুত করে না। এই সময় এবং এই অনুষ্ঠানটিকে একটি অভ্যন্ত আরামে পরিণত করে সেটাকে একটা পরমাৰ বলে কল্পনা করে না। সমস্ত দিন সমস্ত চিন্তায় সমস্ত কাজে একেবারে সমগ্র নিজেকে স্বন্ধের অভিমুখে চালনা করে-উলটোদিকে নয়,