পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৬৫২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গ্রন্থপরিচয় ৩২৯ রহিয়াছে, তাহ বলা যায় না। র্তাহাদিগকে নিজের জীবন উৎসর্গ করিয়া ভবিষ্যদবংশীয়দিগের জন্য পথ প্রস্তুত করিতে হইবে । ছাত্রেরা কি তাহাতে প্রস্তুত আছেন । আজ জোয়ারের সময় তাহার যে-আত্মদানের সংকল্প গ্রহণ করিবেন, ভাটার সময় যেন তাহা হইতে ভ্ৰষ্ট না হন । [ সভার ] উপসংহারে শ্ৰীযুক্ত রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বলেন যে, ছাত্রমণ্ডলী জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য আত্মবিসর্জন করিবার যে, সংকল্প করিয়াছেন, তাহার জন্য র্তাহার। দেশের শুভাকাঙ্ক্ষীমাত্রেরই ধন্যবাদার্হ। যদি তাহার এই সংকল্প রক্ষা করিতে পারেন, তবে এই দিন বাংলার ইতিহাসে চিরস্মরণীয় হইয়া থাকিবে। এই আন্দোলনের ফলে যে 'জাতীয় শিক্ষণসমাজ বা ‘জাতীয় শিক্ষণপুরিষৎ’ প্রতিষ্ঠিত হয় তাহার প্রাক্কালে আহূত বিভিন্ন মন্ত্রণাসভা গঠনপ্রণালী-আলোচনাসমিতি হইতে আরম্ভ করিয়া জাতীয় শিক্ষাপরিষৎ প্রতিষ্ঠা পর্যন্ত, ও তাহার পর ওই প্রতিষ্ঠান সম্পর্কিত নানা কর্মভারের সহিত রবীন্দ্রনাথ অনেকদিন যুক্ত ছিলেন। শব্দতত্ত্ব শব্দতত্ত্ব গদ্যগ্রন্থাবলীর পঞ্চদশ ভাগ রূপে ১৩১৫ সালে [ ১৯০৯ ] প্রকাশিত হয়। ১৩১৫ বা তাহার পূর্ববর্তীকালে লিখিত শব্বতত্ত্ববিষয়ক যে-সকল রচনা কোনো কারণবশত প্রচলিত গ্রন্থে সংকলিত হয় নাই, তাহদের অধিকাংশই বর্তমান খণ্ডের পরিশিষ্টে মুদ্রিত হইল। রচনাবলী সংস্করণের শব্বতত্ত্বসংক্রান্ত প্রবন্ধাবলীর পাঠপ্রস্তুত কার্যে শ্ৰীপ্ৰবোধচন্দ্র সেন, শ্ৰীহাজারীপ্রসাদ দ্বিবেদী ও শ্ৰীনিত্যানন্দবিনোদ গোস্বামী সহযোগিতা করিয়াছেন । প্রবন্ধগুলির সাময়িক পত্রে প্রথম প্রকাশের আহ্বপূর্বক স্বচী পরে প্রদত্ত হইল। । ১ দ্রষ্টব্য : ১। জাতীয় শিক্ষাপরিষৎ প্রতিষ্ঠা উৎসবে রবীন্দ্রনাথের বক্তৃতা : 'জাতীয় বিদ্যালয় – রবীন্দ্র-রচনাবলী, দ্বাদশ খণ্ড, পৃ. ৩১৩ । শিক্ষাসমস্ত – রবীন্দ্র-রচনাবলী, দ্বাদশ খণ্ড, পৃ. ২৯৫ । ২ । সৌন্দর্যবোধ’, ‘বিশ্বসাহিত্য’, ‘সৌন্দর্য ও সাহিত্য’ ইত্যাদি জাতীয়-শিক্ষাপরিষদে প্রদত্ত বক্ততাবলী —'সাহিত্য’, রবীন্দ্র-রচনাবলী, অষ্টম খণ্ড । ৩। জাতীয় শিক্ষাপরিষদের প্রশ্নপত্ৰ— আদর্শ প্রশ্ন পুস্তিকার পরিশিষ্ট, রবীন্দ্র-রচনাবলী, অচলিত সংগ্রহ, দ্বিতীয় খণ্ড । S२||8 >