পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৮৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ዓ8 রবীন্দ্র-রচনাবলী ওরা কান পেতে শোনে গগনে গগনে নীরবের কানাকানি, নীলিমার কোন বাণী । ওরা প্রাণঝরনার উচ্ছল ধার ঝরিয়া ঝরিয়া বহে অনিবার, চিরতাপসিনী ধরণীর ওরা শুামশিখা হোমানল ৷ দীর্ঘ শূন্য পথটাকে এতদিন ঠেকেছিল বড়ো কঠিন, বড়ো নিষ্ঠুর। আজ তাকে প্ৰণাম । পথিককে সে তো অবশেষে এনে পৌছিয়ে দিলে। কিন্তু, ভুলব কেমন করে যে, যে পথ কাছে নিয়ে আসে সেই পথই দূরে নিয়ে যায়– তাই মনে হয়, ঘরের মধ্যে নিশ্চল হয়ে মিলন স্থায়ী হয় না, পথে বেরিয়ে পড়লে তবেই পথিকের সঙ্গে বিচ্ছেদ এড়ানো যায়। তাই আজ পথকেই প্রণাম । মোর পথিকেরে বুঝি এনেছ এবার করুণ রঙিন পথ । এসেছে এসেছে অঙ্গনে, মোর দুয়ারে লেগেছে রথ । সে-যে সাগরপারের বাণী মোর পরানে দিয়েছে আনি, তার আঁখির তারায় যেন গান গায় অরণ্য পর্বত । দুঃখমুখের এপারে ওপারে দোলায় আমার মন, কেন আকারণ অশ্রুসলিলে ভরে যায় দু’নয়ন । ওগো নিদারুণ পথ, জানি, জানি, পুন নিয়ে যাবে টানি