পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পরিশেষ প্রথম যেদিন ফাঙ্কনতাপে নবনির্বর জাগে, মহাস্থদুরের অপরূপ রূপ দেখিতে সে পায় আগে । আছে আছে আছে, এই বাণী তার এক নিমেষেই ফুটে, অচেনা পথের আহবান শুনে অজানার পানে ছুটে । সেইমতে এক অকথিত ভাষা ধ্বনিল তোমার মাঝে, আছে আছে আছে, এ মহামন্ত্র প্রতি নিশ্বাসে বাজে । রোধিয়াছে পথ বন্ধুর করি অচল শিলার স্তুপ। নহে নহে নহে, এ নিষেধবাণী পাষাণে ধরেছে রূপ। জড়ের সে নীতি করে গর্জন ভীরুজন মরে তুলে, জনহীন পথে সংশয়মোহ রহে তর্জনী তুলে । অলস মনের আপনারি ছায়া শঙ্কিল কায়া ধরে, অতি নিরাপদ বিনাশের তলে বাচিতে চেয়ে সে মরে । নবজীবনের সংকটপথে হে তুমি অগ্রগামী, তোমার যাত্রা সীমা মানিবে না কোথাও যাবে না থামি । ૨S ઉ