পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৫৪৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গ্রন্থপরিচয় ليبيا Q○Q আমি বেসেছিলেম ভালে৷ সকল দেহে মনে এই ধরণীর ছায়া আলে৷ আমার এ জীবনে । সেই যে আমার ভালোবাসা লয়ে আকুল অকুল অাশা ছড়িয়ে দিল আপন ভাষা আকাশনীলিমাতে । রইল গভীর সুখে দুখে, রইল সে-যে কুঁড়ির বুকে ফুল-ফোটানোর মুখে মুখে ফাগুনচৈত্ররাতে । রইল তারি রাখি বাধা ভাবীকালের হাতে । দিনাবসান' কবিতার তৃতীয় অনুচ্ছেদের পরবর্তী বর্জিত অনুচ্ছেদ । দ্রষ্টব্য প্রবাসী, ১৩৩৩ জ্যৈষ্ঠ— ‘জন্মোৎসবের দিনে । পরিশেষের কয়েকটি কবিতা সাময়িক পত্রে গদ্যভূমিকা-সংবলিত আকারে প্রকাশিত হইয়াছিল। নিম্নে গদ্যাংশগুলি মুদ্রিত হইল। अबूक्ष भन জাহাজ চলছে, সমুদ্রের জল কেবলই ছলছল করে, আর লাফিয়ে লাফিয়ে ওঠে। একটি ছোটো শিশু ; আমরা আছি আপন আপন কোণে একটিমাত্র কেদারা নিয়ে, কিন্তু সে আছে সমস্ত ডেক জুড়ে । তার অবুঝ মনখানি অসংলগ্ন অহৈতুক আগ্রহে ফ্যালফেলে চোখের ভিতর দিয়ে বিশ্বের পরিচয় নিচ্ছে। আয়ার অঙ্কবিহারী সেই অাটদশমাসের শিশুটির খেলা দেখে আমার অনেকটা সময় কাটে । এটা বুঝতে পারছি যে, ওরই ওই মনটি আদিমকালের বহু পুরাতন । আমার যেমন ওকে দেখছে আর ভাবছে, সেই হল নূতন ; অনেক চেষ্টায় অনেক শিক্ষায় ও সাধনায় এই বিচারবুদ্ধিমান মন গড়ে উঠছে, এখনো সে অসমাপ্ত । ওরই অবচেতন মনটির সঙ্গে মেলে গাছপালার মধ্যে যে নির্বোধ মন জলের দিকে তার শিকড় চালাচ্ছে, স্বর্ষের দিকে যার আকুতি, যা স্বল্পচালিতের মতে আপন ফুলের ভিতর দিয়ে আপন