পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১২৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কাহিনী \రీ পুত্রেরে চাহিল খেতে ব্রাহ্মণের বেশে, নিজ হস্তে সস্তানে কাটিল ; তখনি সে শিশুরে ফিরিয়া পেল চক্ষের নিমিষে । শিবিরাজ শ্বেনরূপী ইন্দ্রের মুখেতে আপন বুকের মাংস কাটি দিল খেতে, পাইল অক্ষয় দেহ । নিষ্ঠ এরে বলে । তেমন কি এ কালেতে আছে ভূমণ্ডলে ? মনে অাছে ছেলেবেলা গল্প শুনিয়াছি মার কাছে— তাদের গ্রামের কাছাকাছি ছিল এক বন্ধ্য নারী, না পাইয়া পথ প্রথম গর্ভের ছেলে করিল মানত মা গঙ্গার কাছে ; শেষে পুত্রজন্ম-পরে অভাগী বিধবা হল, গেল সে সাগরে, কহিল সে নিষ্ঠাভরে মা গঙ্গারে ডেকে, মা, তোমারি কোলে আমি দিলাম ছেলেকে— এ মোর প্রথম পুত্র, শেষ পুত্র এই, এ জন্মের তরে আর পুত্র-আশা নেই । যেমনি জলেতে ফেলা, মাত ভাগীরথী মকরবাহিনী-রূপে হয়ে মূর্তিমতী শিশু লয়ে আপনার পদ্মকরতলে মার কোলে সমৰ্পিল । নিষ্ঠা এরে বলে |’ মল্লিকা ফিরিয়া এল নতশির করে, আপনারে ধিক্কারিল— এতদিন ধরে বৃথা ব্ৰত করিলাম, বৃথা দেবাৰ্চনা, নিষ্ঠাহীন পাপিষ্ঠারে ফল মিলিল না । ঘরে ফিরে এসে দেখে শিশু অচেতন জরাবেশে । অঙ্গ যেন অগ্নির মতন । ঔষধ গিলাতে যায় যত বারবার পড়ে যায়, কণ্ঠ দিয়া নামিল না আর ।