পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪৩৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


s२२ রবীন্দ্র-রচনাবলী ' & ' বালকগণের প্রবেশ সকলে। সন্ন্যাসীঠাকুর! সন্ন্যাসীঠাকুর । সন্ন্যাসী । ( উঠিয়া দাড়াইয়া) এসে বাবা, সব এসো। সকলে । এ কী ! এ যে রাজা ! অারে, পালা, পালা ! [ পলায়নোস্তম ঠাকুরদাদা। আরে, পালাস নে, পালাস নে। সন্ন্যাসী। তোমরা পালাবে কী, উনিই পালাচ্ছেন। যাও সোমপাল, সভা প্রস্তুত করো গে, আমি যাচ্ছি। W. রাজা । যে আদেশ | [ প্রস্থান বালকেরা। আমরা বনে পথে সব জায়গায় গেয়ে গেয়ে এসেছি, এইবার এখানে গান শেষ করি । l ঠাকুরদাদা । ই ভাই, তোরা ঠাকুরকে প্রদক্ষিণ করে করে গান গা । সকলের গান अt८लग्न ! 9रुउॉकी আমার নয়ন-ভুলানো এলে ! আমি কী হেরিলাম হৃদয় মেলে । শিউলিতলার পাশে পাশে ঝরা ফুলের রাশে রাশে শিশির-ভেজা ঘাসে ঘাসে অরুণ-রাঙা চরণ ফেলে নয়ন-ভুলানো এলে ! আলোছায়ার আঁচলখানি লুটিয়ে পড়ে বনে বনে, ফুলগুলি ওই মুখে চেয়ে কী কথা কয় মনে মনে । তোমায় মোরা করব বরণ, মুখের ঢাকা করে হরণ— ওইটুকু ওই মেঘাবরণ ছু হাত দিয়ে ফেলো ঠেলে ! নয়ন-ভুলানো এলে !