পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শারদোৎসব 8는) সন্ন্যাসী । এখন বিজয়াদিত্য স্বয়ং রক্ষা করবেন, তোমার ভয় নেই। কিন্তু, তোমার কাছে আমার কিছু প্রাপ্য আছে। লক্ষেশ্বর। সর্বনাশ করলে ! সন্ন্যাসী । ঠাকুর্দা সাক্ষী আছেন । লক্ষেশ্বর । এখন সকলেই মিথ্যে সাক্ষ্য দেবে। সন্ন্যাসী । আমাকে ভিক্ষা দিতে চেয়েছিলে। তোমার কাছে এক মুঠো চাল পাওনা আছে। রাজার মুষ্টি কি ভরাতে পারবে ? লক্ষেশ্বর। মহারাজ, আমি সন্ন্যাসীর মুষ্টি দেখেই কথাটা পেড়েছিলেম। সন্ন্যাসী। তবে তোমার ভয় নেই, যাও । । লক্ষেশ্বর। মহারাজ, ইচ্ছে করেন যদি তবে এইবার কিছু উপদেশ দিতে পারেন। সন্ন্যাসী । এখনো দেরি অাছে । লক্ষেশ্বর .তবে প্রণাম হই । চার দিকে সকলেই কৌটোটার দিকে বডড তাকাচ্ছে । á [ প্রস্থান সন্ন্যাসী। রাজা সোমপাল, তোমার কাছে আমার একটি প্রার্থনা আছে। রাজা । সে কী কথা ! সমস্তই মহারাজের, যে আদেশ করবেন— সন্ন্যাসী । তোমার রাজ্য থেকে আমি একটি বন্দী নিয়ে যেতে চাই । রাজা । যাকে ইচ্ছা নাম করুন, সৈন্য পাঠিয়ে দিচ্ছি। নাহয় আমি নিজেই যাব । সন্ন্যাসী। বেশি দূরে পাঠাতে হবে না। ( ঠাকুরদাদাকে দেখাইয়া) তোমার এই প্রজাটিকে চাই । রাজা । কেবলমাত্র একে ! মহারাজ যদি ইচ্ছা করেন তবে আমার রাজ্যে যে শ্রুতিধর স্মৃতিভূষণ আছেন তাকে আপনার সভায় নিয়ে যেতে পারেন। সন্ন্যাসী । না, অত বড়ো লোককে নিয়ে আমার সুবিধা হবে না, আমি একেই চাই । আমার প্রাসাদে অনেক জিনিস আছে, কেবল বয়স্ত নেই। ঠাকুরদাদা। বয়সে মিলবে না প্রভু, গুণেও না। তবে কিনা, ভক্তি দিয়ে সমস্ত অমিল ভরিয়ে তুলতে পারব এই ভরসা আছে। সন্ন্যাসী। ঠাকুর্দ, সময় খারাপ হলে বন্ধুরা পালায় তাই তো দেখছি। আমার উৎসবের বন্ধুরা এখন সব কোথায় ? রাজদ্বারের গন্ধ পেয়েই দৌড় দিয়েছে নাকি ? ঠাকুরদাদা। কারও পালাবার পথ কি রেখেছ ? আটঘটি ঘিরে ফেলেছ যে । ওই আসছে । A欄ミbア