পাতা:রমা-শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/৩০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

डीिब्र ग्रुक রমী 苓> আমি বড় গরীব সে এদিকের সবাই জানে। ওঁদের মত আমার জমি-জমা চাষ-বাস কিছুই নেই, একরকম চেয়ে-চিন্তে ভিক্ষে-শিক্ষে করেই আমাদের দিন চলে ।-ভাল জিনিস ছেলেপিলেদের কিনে খাওয়াবার ক্ষমতা ত ভগবান দেন নি, তাই বড়-ঘরে কাজকৰ্ম্ম হলে ওরা খেয়ে বাচে। কিছু মনে কোরো না বাবা, তারিণীদাদা’ বেঁচে থাকৃতে আমাদের তিনি খাওয়াতে বড় ভালবাসতেন। দীমুর দু'চক্ষু জলে ভরিয়া টপ, টপ করিয়া দু'ফোটা অশ্রু সকলের সম্মুখেই ঋরিয়া পড়িল । দীমু মলিন ও ছিন্ন উত্তরীয়-প্রান্তে তাহা মুছিয়া ফেলিল গোবিন্দ । আহা! তারিণীদাদ শুধু তোমাকে খাওয়াতেই ভালবাসতেন ! শুনলে ধৰ্ম্মদাসদা, শুনলে কথা ? দীয় । আমি কি তাই বলুচি গোবিন্দ ? আমার মত গরীব দুঃখী কেউ কখনো তারিণীদা’র কাছ থেকে খালি হাতে ফেরে নি। রমেশ । ভট্চায্যি মশাই, এই দুটাে দিন আমার ওপরে একটু দয়া রাখবেন। আর যদি খাদ্ধর মা এ বাড়ীতে একবার পায়ের ধূলো দিতে পারেন ত তাগ্য বলে মানব । দীচু । আমি বড় গরীব বাবা, আমি বড় দুঃখী । আমাকে এমন করে বললে যে আমি লজ্জায় মরে যাই— * ভূত্যের প্রবেশ ভৃত্য। বাৰু, গিরি-মা একবার বাড়ীর ভেতরে ডাক্‌চেন। রমেশ। যাই। দীমু। বাবা, আমরা তাহলে এখন আসি ।