পাতা:রাধারাণী-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/১২১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চম খণ্ড ঃ প্রথম পরিচ্ছেদ bنس

রজনী কঁাদিতে কঁাদিতে বলিল, “আপনি যদি চিরকাল দস্থ্যবৃত্তি করিয়া থাকেন— আপনি যদি সহস্ৰ ব্ৰহ্মহত্য, গোহত্য, স্ত্রীহত্যা করিয়া থাকেন, তাহ হইলেও আপনি আমার কাছে দেবতা। আপনি আমাকে চরণে স্থান দিলেই আমি আপনার দাসী হইব। কিন্তু আমি আপনার যোগ্য নহি। সেই কথাটি আপনার শুনিতে বাকি আছে।”

আমি । সে কি রজনি ? রজনী। আমার এই পাপ মন পরের কাছে বিক্রীত। - আমি চমকিয়া শিহরিয়া উঠিলাম। জিজ্ঞাসা করিলাম, “সে কি রজনি ?” > রজনী বলিল, “আমি স্ত্রীলোক—আপনার কাছে ইহার অধিক আর কি প্রকারে বলিব ? কিন্তু লবঙ্গ ঠাকুরাগী সকল জানেন। যদি আপনি তাহাকে জিজ্ঞাসা করেন, তবে সকল শুনিতে পাইবেন। বলিবেন, আমি সকল কথা বলিতে বলিয়াছি।” আমি তখনই মিত্রদিগের গৃহে গেলাম। যে প্রকারে লবঙ্গের সাক্ষাৎ পাইলাম, তাহ লিখিয়া ক্ষুদ্র বিষয়ে কালক্ষেপ করিব না। দেখিলাম, লবঙ্গলতা খুল্যবলুষ্ঠিত হইয়৷ শচীন্দ্রের জন্য র্কাদিতেছে। যাইবামাত্র লবঙ্গলত। আমার পা জড়াইয়া আরও কাদিতে লাগিল—বলিল, “ক্ষমা কর । অমরনাথ, ক্ষমা কর । তোমার উপর আমি এত অত্যাচার করিয়াছিলাম বলিয়া বিধাতা আমাকে দণ্ডিত করিতেছেন। আমার গর্ভজ পুত্রের অধিক প্রিয় পুত্র শচীন্দ্ৰ বুঝি আমারই দোষে প্রাণ হারায় ! আমি বিষ খাইয়৷ মরিব । আজি তোমার সম্মুখে বিষ খাইয়া মরিব।” - আমার বুক ভাঙ্গিয়া গেল। রজনী কঁাদিতেছে, লবঙ্গ কাদিতেছে। ইহার স্ত্রীলোক, চক্ষের জল ফেলে; আমার চক্ষের জল পড়িতেছিল না—বি রজনীর কথায় আমার হৃদয়ের ভিতর হইতে রোদনধ্বনি উঠিতেছিল। লবঙ্গ কাদিভেছে, রজনী কঁাদিতেছে, আমি কাদিতেছি—আর শচীন্দ্রের এই দশা । কে বলে সংসার সুখের ? সংসার অন্ধকার । o আপনার দুঃখ রাখিয়া আগে লবঙ্গের দুঃখের কথা জিজ্ঞাসা করিলাম। লবঙ্গ তখন কাদিতে কাদিতে শচীন্দ্রের পীড়ার বৃত্তান্ত সমুদয় বলিল। সন্ন্যাসীর বিদ্যাপরীক্ষ হইতে ক্লাশয্যায় রজনীর সঙ্গে সাক্ষাৎ পৰ্য্যন্ত লবঙ্গ সকল বলিল । : তার পর রজনীর কথা জিজ্ঞাসা করিলাম। বলিলাম, “রজনী সকল কথা বলিতে বলিয়াছে—বল।” লবঙ্গ তখন, রজনীর কাছে যাহা যাহা শুনিয়াছিল, অকপটে সকল বলিল । .রজনী শচীন্দ্রের, শচীন্দ্র রজনীর ; মাঝখানে আমি কে ? এবার বস্ত্রে মুখ লুকাইয়া কাদিতে কাদিতে আমি ঘরে ফিরিয়া আসিলাম। >> to