পাতা:রাসেলাস.djvu/২০০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রাসেলাস । * ゲ> মগ্রী অবলোকন করিয়া ਜਾਂ অধীরতা নিবারণ করিয়া রাখিলাম। দিনের বেলীয় সুর্যের গতিদ্বারা যখন যে দিকে রমণীয় শোভ হইভ, ওখন সেই দিকে দৃষ্টিপাত করিতাম। যাহা পুর্বে কখন নেত্রপথের অতিথি হয় নাই, এমন অনেক আশ্চর্য বস্তু সৰ্ব্বদ দেখিতে পাইতাম। সেই নিৰ্ম্মমুখ্য দেশে কুম্ভীর ও জলহস্তীর অভাব নাই । যখন আমি তীরে দণ্ডীয়মান হইয়! তাহাদিগের প্রতি নেত্রপাত করিতাম তাহার কেন অপকাব করিতে পরিবে না জানিযt"ও আমার মনে ভয় জম্মিত ; ” “ গ্রহমণ্ডলীর পর্যানে ক্ষণ নিমিক্স সেনাপতির স্বতন্ত্র এক অট্টালিকা ছিল ; সেন পতি প্রতিদিন সাযংকালে অমীকে তাঁহারই উপরিভাগে লইয়া গিয়া, জ্যোতিষ্কমণ্ডলীর বিশেষ বিবরণ শিখাইবার চেষ্টা করিতেন। আমীর তাঁহ শিথিবীর আগ্রহ ছিল না, কিন্তু আমার শিক্ষকের ভদ্বিষয়ে নৈপুণ্য থাকতে তিনি আপনাকে পণ্ডিত বলিয়া জ্ঞান করিতেন । তাহাকে সন্তুষ্ট রাখা আবশ্যক বোধ হও* য়াতে, আমি এইরূপ প্রকাশ করিতে লাগিমাম যেন,তাহার উপদেশবিষয়ে মনোযোগ দিতেছি, বাস্তবিক श्रांगांत्र মন সে দিকে ধাবমান হইত না । কিঞ্চিৎ কাল পরে আমি বিবেচনা করিয়া দেখিলাম, যে স্থানে ক্রমাগত এক প্রকার বস্তু দেখিতে হয়, তথায় অন্ততঃ মনের অসন্তোষ নিবারণের নিমিত্তও কোন কৰ্ম্মে ব্যাপৃত থাকা আবশ্যক।