পাতা:রাসেলাস.djvu/৩৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


R* রাসেলাস | ' গাইতে হয় না; কেবল সহজে সম্মুখে বেগ দিলেই অনা য়াসে যাওয়া যায়। বিবেচনা করিয়া দেখুন,যখন কোন দর্শনশাস্ত্রজ্ঞ পণ্ডিত পঙ্কযুক্ত হইয়া নভোমণ্ডল আশ্রয় করিবেন এবং উপর হইতে দৈখিবেন, নিম্নে পৃথিবী যথানিয়মে পরিভ্রমণ করিতেছে ; কখন সুমেরু, কখন বা কুমেক, কখন সাগর, কথন বা নগর, কখন পৰ্ব্বত, কখন বা অরণ্য, উপহার দৃষ্টিপথে পতিত হইতেছে ; তখন তাহার অন্তঃকরণে কি অসীম আনন্দোদয় হ’ষ্ট বেক । তখন তিনি বাণিজ্যের বিপণি ও সংগ্রাম ক্রম সম ভাবে দেখিবেন এবং অসভ্য পৰ্ব্বতীয় লোকের বাস স্থান ও সমৃদ্ধিশালী সন্ধিসুখসম্পন্ন রাজ্য এক ভাবে অবলোকন করবেন : মনে কিছু মাত্র ভয় জন্মিবেক ন । তখন আমরা সহজেই নীল নদের উৎপত্তিস্থান নির পণ করিতে পারিব এবং পৃথিবীর এক দিক হইতে অপর দিকের অতুসন্ধান লইতে সমর্থ হইব ।” “হষহি তুমি কহিলে তাহ অভিলষণীয় বটে কিন্তু . আমার বোধ হয়, যেখানে উঠিলে পতনের ভয় থাকি, বেক না তথায় নিশ্বাস রোধ হইয়া মারা যাইবার সম্ভা বন । আমি শুনিয়াছি, উচ্চ পৰ্ব্বতের উপর উঠিলে নিশ্বাস ফেলিতে কষ্ট বোধ হয়, কিন্তু তথা হইতে পড়িযার বিলক্ষণ সম্ভাবনা আছে । যেখানে নিশ্বাস কেলিতে পারা যায়, ওখ হইতে পতনেরও জ্ঞয় থাকে।” রাজকুমা