পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (অষ্টম সম্ভার).djvu/১৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ বিদুর জননী কিছুক্ষণ চুপ করিয়া থাকিয়া বলিলেন, বিন্দু, তোমার ওদের বাড়ি গিয়ে কাজ নেই। হারাণ মুখুয্যে লোক ভাল নয়, তোমার বাপের সঙ্গে ওর শক্ৰতা আছে ; তোমার কি ওদের বাড়ি যাওয়া ভাল দেখায় ? হারাণ মুখুয্যে লোক ভাল নয় তা আমি জানি, কিন্তু আমি ত আর তার কাছে যাচ্চি নে। তার স্ত্রীর কাছে যেতে দোষ কি? বেশ বুঝতে পাচ্চি ওদের কিছু একটা হয়েছে ; আমরা পাড়া-প্রতিবেশী হয়ে যদি এ সময় চোখ বুজে থাকি তা হ’লে শ্বশুরবাড়িতে আমার আর কেউ মুখ দেখবে মা ? অঘোরনাথ কি তোকে পাড়ায় পাড়ায় কার কি হ’ল না হ'ল দেখে বেড়াতে বলেচে যে, তুই ওদের বাড়ির সন্ধান না নিলে উনি আর তোর মুখ দেখবেন না ? আর আমি তোর মা হয়ে যা বারণ করছি সেটা কি শোনবার যোগ্য নয় ? মা, আমাকে যেতেই হবে । গিয়ে কি শুনবে ? হারাণ-মুখুয্যের কি হয়েচে তা বাড়ির কেউ জানে না। তুমি কি ক’রে জানলে ? তোমার বাপের কাছে শুনেচি । তবে কি হয়েছ, বল । নন্দীদের তহবিল ভেঙ্গেচে বলে তারা হাজতে দিয়েচে । নন্দীরা কারা ? বামুনপাড়ার জমিদার। তাদের কাছারিতে হারাণ মুখুয্যে চাকরি করত । কত টাকা চুরি করেচে ? প্রায় দুশ টাকা । কেউ জামিন হয় নি ? কে আর হবে বল ? গায়ে তোমার বাবাকেই সকলে জানে এবং তিনিই কেবল জামিন হ’তে পারেন, কিন্তু তাকে ত সে পোড়া মিনসে শত্রু করে রেখেচে । একে একবার জামিন হ’তে বলেছিল, কিন্তু স্বীকার হয় নি । বিদু অনেকক্ষণ মৌন হইয়া কি চিন্তা করিল, পরে বলিল, দুপুরবেলা একবার ওদের বাড়ি যাব ৷ এসে পৰ্য্যন্ত বউকে একদিনও দেখিনি । বিন্দুর মাতা বিস্থিত হইলেন এবং কুপিত হইয়া বলিলেন, এত কথা শুনেও যাবি ৷ বিন্দু যেরূপ সহজ ও স্বাভাবিক ভাবে ঘাড় নাড়িয়া ই বলিল, তাহাতে গৃহিণীর আর কথা কহ হইল না। কিছুক্ষণ চুপ করিয়া বিন্দু পুনরায় কহিল, আমি ওদের বাড়ি গেলে কারও কোন ক্ষতি নাই। আমি এই বলি মা, পুরুষমানুষদের ঝগড়া মেয়ে-মহল পৰ্য্যস্ত না পোঁছলেই ভাল।