পাতা:সংবাদপত্রে সেকালের কথা প্রথম খণ্ড.djvu/৫১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সংবাদ পত্রে মোকানের কথা مسيين هاتي পক্ষের স্ববিচার হইল, পরে আমরা ঐশ্ৰীযুতের বাম ভাগে দণ্ডায়মান হইয়া কহিলাম “হে সভ্য ভৰ্য মহাশয় সকল, আমারদিগের বাক্যে অবধান করুন, এ বিচার বিচার সমর নহে, এ সমর সেই রূপ সমর যেমন কিরতিবেশি মহাদেবের সহিত অৰ্জ্জুনের সমর হইয়াছিল, ধনঞ্জয়ের যুদ্ধ পরাক্রমে সস্তুষ্ট হইয়া মহাদেব র্তাহাকে বর প্রদান করিয়াছিলেন, নন্দকুমার এক শিশু বিশেষ, গোলোকনাথ স্থায়রত্ন মহাশয় নবদ্বীপের এক জন প্রধানাধ্যাপক, অথচ বৰ্দ্ধমান রাজ্যেশ্বর শ্রীল প্রযুক্ত বাহাদুরের সমক্ষে নন্দকুমার এই ঘোরতর বিচার করিলেন অতএব আপনার সস্তুষ্ট হইয়া নন্দকুমারকে বর প্রদান করুন" ইহাতে অধ্যাপক মাত্র সকলেই নন্দকুমারকে প্রতিষ্ঠা পাত্র করিলেন এবং আশীৰ্ব্বচন দ্বারা কহিলেন, হে বালক, তুমি চিরজীবী হইয়া ন্যায় বিস্তার কর, ইহাতেই স্তায় শাস্ত্র বিচারের পরিশেষ হইল, পরে আমরা কহিলাম গোলোকনাথ স্থায়রত্ন মহাশয় পরমেশ্বরের অস্তিত্ব বিষয়ে সংস্কৃত ভাষায় বক্ততা করুন, ইহাতে স্থায়রত্ন মহাশয় উৎসাহ পূর্বক বক্তৃত। দ্বার সভারঞ্জন করিলেন, শ্ৰীলশ্ৰীযুক্ত অধিরাজ বাহাদুর ন্যায়রত্বের সস্থত রত্বে যত্ন প্রকাশ করিয়া তাহাকে ধন্যবাদ দিলেন তংপরে আমরা কহিলাম “রামচন্দ্র যুধিষ্ঠিরাদির রাজত্ব সময়ে ঋষি সকল তাহারদিগের সভায় আদিয়া বেদ পাঠ করিতেন এবং ঐ সকল মহারাজদিগকে আশীৰ্ব্বাদ করিয়া বিদায় হইতেন, আমারদিগের মহারাজাধিরাজ বাহাদুরও ক্ষত্ৰকুল তিলক বিশেষ, আপনারাও ঋষি সস্তান, এইক্ষণে, মহাশয় সকল শ্ৰীশ্ৰীযুতকে আশীৰ্ব্বাদ করুন, ইহা শ্রবণে অধ্যাপক মহাশয়ের উদ্ধবাহু হইয়া বেদোচ্চারণ করিয়৷ শ্ৰীমন্মহারাজাধিরাজ বাহাদুরকে আশীৰ্ব্বচন বলিয়া বিদায় হইলেন, ব্রাহ্মণ পণ্ডিত বিদায়ের উচ্চ হার ৫০ টাকা, এক রজত ঘড়ী, তাহার পরিমাণ ৫ : ভরী, এই শ্রান্ধের সমুদায় ব্যয় অধিরাজ বাহাদুর দিয়াছেন । পৃ. ২১১-১৪ – নেটব হাসপাতাল, ধৰ্ম্মতলা। এই প্রতিষ্ঠানের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস সম্বন্ধে চালর্স লাশিংটন সাহেবের The History, Design • পুস্তকের ২৯৪-৩০১ পৃষ্ঠা দ্রষ্টব্য । এই হাসপাতালের কার্য্যসৌকর্য্যাৰ্থ জোড়াসাকোর রাজপরিবার প্রচুর অর্থ দান করিয়াছিলেন। সরকারী কাগজপত্র হইতে জানা যায়, ১৮২৫ সনের ২৩ ডিসেম্বর রাজা বৈদ্যনাথ রায় এই প্রতিষ্ঠানের জন্ত গবৰ্ম্মেন্টের হস্তে ত্রিশ হাজার টাকা, এবং ১৮২৬ সনের এপ্রিল মাসে র্তাহার দুই ভ্রাতা—শিবচন্দ্র রায় ও নরসিংহচন্দ্র রায়—কুড়ি হাজার টাকা স্তস্ত করেন । পৃ. ২১৬-৫২ — সন্ত্রান্ত লোক । এই যুগের অধিকাংশ সম্ভ্রান্ত পরিবারের সংক্ষিপ্ত পরিচয় লোকনাথ ঘোষের The Modern History of the Indian Uhiess, Rajas, Zamindars, etc. (1881) arg vitsal to ২১৮-১৯ – লালা বাবু। খ্ৰীযুত শ্ৰীশচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় ‘লালাবাবু নামে একখানি পুস্তিক লিখিয়াছেন । মোরেনে সাহেবও stættTtI nVtE gæfð ð í eTE EFI-f FfITttEA ( Bengal : Past & Present, Octr.—Decr. 0000S DD BBBB BBBB DDBBB BB BBDD BBB BB BBBS BBB SBBB BB ইণ্ডিয়া পত্রের ১৮২০, জুলাই সংখ্যায় (পৃ. ১৯৯-২০৩) লালাবাবুর মৃত্যু-প্রসঙ্গে কিছু লিখিত হইয়াছিল। ভারত-গবৰ্ম্মেন্টের পুরাতন দপ্তর হইতে উপাদান সংগ্ৰহ করিয়৷ আমি লালাবাবুর বৃন্দাবন-প্রবাসের ইতিহাস ১৯২৭ সনের Benga? : Past & Present পত্রে প্রকাশ করিয়াছি ।