সারদামঙ্গল

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
সারদামঙ্গল

সারদামঙ্গল।
বিহারিলাল চক্রবর্তী বিরচিত।

“सङ्गामविरहविकल्प वरमिह विरही न सङ्गमस्तस्याः ।
सङ्ग सैव तथैका विभुवनमपि तन्मयं विरहे।”

সারদামঙ্গল - বিহারীলাল চক্রবর্ত্তী (page 1 crop).jpg

কলিকাতা :
শ্যামপুকুর ষ্ট্রীট, নম্বর ৩৮।
নুতন বাঙ্গালা যন্ত্রে শ্রীযােগেন্দ্রনাথ বিদ্যারত্ন কর্তৃক
মুদ্রিত ও প্রকাশিত।
সন ১২৮৬।

 ১২৭৭ সালে সারদামঙ্গলের রচনা আরম্ভ হইয়া অসম্পূর্ণ অবস্থায় পড়িয়া থাকে, ১২৮১ সালে “আর্যদর্শন" পত্রে তদবস্থাতেই প্রকাশিত হয় ; এক্ষণে সম্পূর্ণ হইল।

উপহার।
গীতি।
―০―
[ রাগিণী ভৈরবী-তাল আড়াঠেকা।]
নয়ন-অমৃতরাশি প্রেয়সী আমার ।
জীবন-জুড়ান ধন, হৃদি ফুলহার!
মধুর মুরতি তব
ভরিয়ে রয়েছে ভব,
সমুখে সে মুখ-শশী জাগে অনিবার।
কি জানি কি ঘুমঘরে,
কি চোকে দেখেছি তােরে,
এ জনমে ভুলিতে রে পারিব না আর।
তবুও ভুলিতে হবে,
কি লয়ে পরাণ রবে,
কঁদিয়ে চাদের পানে চাই বারেবার !
কুসুম-কানন মন
কেন রে বিজন বন,
এমন পূর্ণিমা-নিশি যেন অন্ধকার।
হে চন্দ্রমা, কার দুধে
কঁদিছ বিষন্ন মুখে !
অয়ি দিগনে কেন কর হাহাকার !
হয় তাে হলনা দেখা,
এ লেখাই শেষ লেখা,
অন্তিম কুসুমাঞ্জলি মেহ-উপহার,-
ধর ধর স্নেহ-উপহার!

পরিচ্ছেদসমূহ (মূল গ্রন্থে নেই)

সূচীপত্র

এই লেখাটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাবলিক ডোমেইনে অন্তর্গত কারণ এটি ১৯২২ খ্রিষ্টাব্দের ১লা জানুয়ারির পূর্বে প্রকাশিত।


লেখক {{{1}}} সালে মারা গেছেন, তাই এই লেখাটি সেই সমস্ত দেশে পাবলিক ডোমেইনে অন্তর্গত যেখানে কপিরাইট লেখকের মৃত্যুর ১০০ বছর পর্যন্ত বলবৎ থাকে। এই রচনাটি সেই সমস্ত দেশেও পাবলিক ডোমেইনে অন্তর্গত হতে পারে যেখানে নিজ দেশে প্রকাশনার ক্ষেত্রে প্রলম্বিত কপিরাইট থাকলেও বিদেশী রচনার জন্য স্বল্প সময়ের নিয়ম প্রযোজ্য হয়।