পাতা:অধিকার-তত্ত্ব.pdf/৩৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অধিকার-তত্ত্ব | ** দ্বারা ব্রহ্মকে নিয়ত ভোগ করিতে চেষ্টা করেন । তিনি স্বীয় গুণের ও ভাবের অরোপণ দ্বারা ব্রহ্মের মহত্ত্বকে কম্পিত ও ক্রমে উন্নত করেন না, কিন্তু সেই অখণ্ড-রসস্বরূপের অাদর্শে আপনার আত্মাকে সরস ও উন্নত করেন । ইন্দ্রিয়, বিষয় ও কণপনার উত্তেজনায় তাহার সেই জাগ্ৰতযোগ ভঙ্গ হয় না । সেই পরম-যোগ মিথ্যা-উপাধি ও অভিমানের অধীনে বা শাসনে সংসাধিত হয় না । তঁহার অগত্বা বাহ্য-উত্তেজনা-জনিত ব্ৰহ্মলাভের চঞ্চল-লালসা হইতে উদ্ধার পাইয়া ব্রহ্ম-প্রসাদ লাভ দ্বারা মহোন্নতি প্রাপ্ত হয়, এবং ইন্দ্রিয়, বিষয় ও চিত্তকে সুন্দর রূপে শাসিত করিয়া আপনি উহারদের কলহের উপরি বাস করত ব্রহ্ম ক্লপ-সহকারে পরমোপাদেয় ব্রহ্ম-যোগ ও ব্রহ্মের পরমপবিত্ৰ-প্রিয়কণৰ্য্য সাধন করিয়া থাকে । ৩ । ব্রহ্মজ্ঞানের অধিকার আধ্যাত্মিক, অতএব উহার উন্নতি, ব্রহ্মের আদশে আত্মার মধ্য দিয়াই বিশেষ রূপে হইয়া থাকে আত্মা স্বাধীনভাবে পরমাত্মার পূজাদ্বারা যদি সেই অধিকারকে প্রশস্ত করে, তবে অবশ্য কৃতকার্য্য হয় । বাহ্য শাসন যদি অগত্মার স্বাধীনতার বিৰুদ্ধ হয়, তবে তৎকর্তৃক ব্রহ্মজ্ঞানের অধিকার এক বিন্দুও প্রশস্ত হয় না । ফলতঃ বাহিরের ক্ষুদ্র উপকরণ ও মন বুদ্ধি ইন্দ্রিয়গণের ক্ষুদ্র উপলক্ষ-দ্বারা ফল-কামনা-হুত্রে আত্মাতে ব্ৰহ্মলাভের যে চঞ্চল-লালসা উৎপন্ন হয়, স্বভাবতঃ তদ্বারা ভক্তি-পূর্বক ব্রহ্মের পূজা হইতে পারে,বটে, কিন্তু সেই সকল সামান্য উপকরণ ও উপলক্ষ হইতে আত্মার