পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৩০১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


एताभ्ोम् खझि ఇ సిసి গণক সে যাত্রা রক্ষা পাইলেন। পরদিন—ডেনহাম এই সৈন্ত সমেত ণে হইতে বাহির হইলেন । কিয়ৎক্ষণ যুদ্ধের পর, শক্রকে গোলাবর্ষণে একটু উত্যক্ত করিয়া তিনি পুনৰ্ব্বার দুর্গে ফিরিয়া আসিলেন । মোগলপক্ষকে প্রতারিত কমিবার জন্য, চার্ণক এই সময়ে একটা নূতন কৌশল উদ্ভাবন করিলেন। পূৰ্ব্বদিনে যে সমস্ত সেন, জাহাজ হইতে দুর্গমধ্যে আসিয়াছিল, তাহাদের আগমন ব্যাপার মোগলেরা যে লক্ষ্য করে নাই, তাহা নহে । চার্ণক গুপ্তভাবে সেই সেনাগুলিকে দুই চারি জন করিয়া পুনরায় ডেনহামের জাহাজে পাঠাইয়া দিলেন। তাহারা তৎপর দিন দলবদ্ধ ভাবে, ঢঙ্কানিনাদ করিয়া, নিশান হাতে লইয়া, জয়োল্লাস করিতে করিতে, হিজলীর দুর্গমধ্যে প্রবেশ করিল। মাত্র সত্তরজন সেনা লইয়া চার্ণক এই খেল খেলাইতে লাগিলেন । মোগল পক্ষ ইহাতে ভাবিল, জাহাজ হইতে আরও নূতন ইংরাজ সেন নামিতেছে। ইহাতে তাহার একটু মিয়া গেল। ইংরাজ পক্ষ এই উপযুক্ত অবসরে সন্ধির প্রস্তাব করিল। রোগলের ইংরাজের প্রচুর সেনা আসিয়াছে ভাবিয়া, এ সন্ধি প্রস্তাবে কোনরূপ আপত্তি করিল না। ইংরাজের যাহাতে নিৰ্ব্বিত্ত্বে সুতালুটতে প্রত্যাগমন করিতে পারেন ও নবাব সায়েস্তা খণর নিকট র্ত্যহাদের পূর্ব গ্রার্থিত দ্বাদশট স্বত্ব যাহাতে মঞ্জুর হয়, ইংরাজপক্ষ সেই প্রস্তাব করিয়া পাঠাইলেন । ট্রেঞ্চফিল্ড ও র্তাহার দুইজন সহযোগী—এই সন্ধিপত্রের জন্ম—আবদুল সামেদের শিবিরে যাতায়াত করিতে লাগিলেন । সন্ধিপত্র স্বাক্ষরিত হইল। ইংরাজেরা তাহীদের গোলা, বারুদ, কামান ও অন্তান্ত দ্রব্যাদি যাহ। কিছু ছিল, তাছা জাহাজ বোঝাই করিয়া লইয়া, পুনরায় সুতলুটার দিকে যাত্রা করিলেন । হিজলী পুনরায় মোগলের অধিকারে আসিল । আবদুল সামেদ এই ব্যাপারে ইংরাজদের সহিত একটু চাল চালিয়াছিলেন। তিনি ইংরাজ প্রতিনিধিদের বলিলেন—“প্রস্তাবিত সন্ধিপত্রের খসড়া করিয়া নবাব সায়েস্তা-খণর মঞ্জুরীর জন্য ঢাকায় পাঠাইলাম । ইরাজের ইতিমধ্যে উলুবেড়িয়া পৰ্য্যস্ত যাইতে পারেন।” ইংরাজদিগকে মোগলের থানা দুর্গ পৰ্য্যস্ত নিরাপদে যাইবার জন্য ছাড় দিতেও তিনি স্বীকৃত श्भ । কিন্তু কোথায় বা সেই ছাড়, কোথায় বা সায়েস্তা খণর অনুমোদন পত্ৰ ! তিন মাসের মধ্যে কোন জবাবই আসিল না দেখিয়া অগত্য জব চার্ণক ইতালুট পৰ্য্যস্ত অগ্রসর না হইয়া উলুবেড়িয়াতেই আশ্রয় গ্রহণ করিলেন । ,