পাতা:কালান্তর - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কালান্তর মধ্যে স্থায়ী বাসস্থান বাধলে, তখন তার সঙ্গে আমাদের সংঘর্ষ ঘটতে লাগল— কিন্তু সে সংঘর্ষ বাহ, এক চিরপ্রধার সঙ্গে আর-এক চিরপ্রধার, এক বাধা মতের সঙ্গে আর-এক বাধা মভের। রাষ্ট্রপ্রণালীতে মুসলমানের প্রভাব প্রবেশ করেছে, চিত্তের মধ্যে তার ক্রিয়া সর্বতোভাবে প্রবল হয় নি, তারই প্রমাণ দেখি সাহিত্যে । * তখনকার ভদ্রসমাজে সর্বত্রই প্রচলিত ছিল পার্লি, তৰু বাংলা কাব্যের প্রকৃতিতে এই পার্সি বিষ্কার স্বাক্ষর পড়ে নি— একমাত্র ভারতচন্দ্রের ৰিডাম্বন্দরে - அம்ச டி படி டிம் அ; k پس= মাজত ভাষায় ও অম্বলিত ছনে যে নাগরিকতা প্রকাশ পেয়েছে তাতে পালিপড়া মিতপরিহাসপটু বৈদগ্যের আভাল পাওয়া যায়। তখনকার বাংলা সাহিত্যের crषांनङ झई डांश झ्णि ; ७रू यत्रनकांबा, चांब्र-७क বৈষ্ণব পদাবলী। মঙ্গলকাব্যে মাঝে মাঝে মুসলমান রাজ্যশাসনের বিবরণ আছে, কিন্তু তার বিষয়বস্তু কিম্বা মনস্তত্ত্বে মুসলমান সাহিত্যের কোনো ছাপ দেখি নে, বৈষ্ণব গীতিকাব্যে তো কথাই নেই। অথচ বাংলা ভাষায় পার্সি শব্দ জমেছে বিস্তর, তা ছাড়া সেদিন অন্তত শহরে রাজধানীতে পারসিক আদবকায়দার যথেষ্ট প্রাদুর্ভাৰ ছিল। তখনকার কালে দুই সনাতন বেড়া-দেওয়া সভ্যতা ভারতবর্ষে পাশাপাশি এলে দাড়িয়েছে, পরম্পরের প্রতি মুখ ফিরিয়ে । তাদের মধ্যে কিছুই ক্রিয়া<थठिङ्गिब्रां इञ्च नि ठां नग्न, क्रुि ठीं जांयांछ । बाइबरलब्र शांक ८नट्त्रज्ञ উপরে খুব জোরে লেগেছে, কিন্তু কোনো নতুন চিন্তারাজ্যে কোনো নতুন স্বষ্টির উদ্যমে তার মনকে চেতিয়ে তোলে নি । তা ছাড়া আৱে। একটা কথা আছে। বাহির থেকে মুসলমান হিন্দুস্থানে এসে স্বামী বাসা বেঁধেছে কিন্তু আমাদের দৃষ্টিকে বাহিরের দিকে প্রসারিত করে নি। তারা ঘরে এসে ঘর দখল করে বলল, বদ্ধ করে দিলে ৰাহিরের দিকে দরজা। মাঝে মাঝে সেই দরজা-ভাঙাতাঙি চলেছিল, কিন্তু এমৰ কিছু ঘটে নি যাতে ৰাহিরের ৰিখে আমাদের পরিচয় ৰিভারিত হতে পারে।