পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/১০৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


       রৌক্মপদ্ম-ব্যগ্রকরাং বরদাংগ দক্ষিণেন তু।
 
 দেবতার মধ্যে শ্রেষ্ঠ ধর্ম্ম মহাশয়।
 সর্ব্ব পাপ হরে যাঁর লইলে আশ্রয়।।
 ধর্ম্মবন্ত হইবেক তেঁই সে কুমার।
 মহাবলবন্ত হবে সর্ব্বগুণাধার।।
 নিয়ম করিয়া ধর্ম্মে করহ স্মরণ।
 আজিকার বিলম্ব না সহে একক্ষণ।।
 স্বামীর বচনে কুন্তী করিল স্বীকার।
 স্বামী প্রদক্ষিণ করি করে নমষ্কার।।
 আদি পর্ব্ব ভারত যে ব্যাসের রচিত।
 পরম পবিত্র পূণ্য শ্রবণে অমৃত।।
 আয়ুর্যশ পুণ্য বাড়ে যাহার শ্রবণে।
 পাঁচালী প্রবন্ধে কাশীরাম দাস ভণে।।
         -----
 যুধিষ্ঠিরাদির জন্ম ।
   মুনি বলিলেন শুন রাজ্য অধিকারী।
 বৎসরেক গর্ভ যবে ধ্রিল গান্ধারী।।
 সেইত সময়ে তবে ভোজের নন্দিনী।
 যেই মন্ত্র দিয়াছিল সে দুর্ব্বাসা মুনি।।
 সেই মন্ত্রে জপি ধর্ম্মে করিল আহ্বান।
 তৎক্ষণে আইল ধর্ম্ম কুন্তী বিদ্যমান।।
 ধর্ম্মের সঙ্গমে হইল গর্ভের সঙ্গতি।
 পরম সুন্দর সুত প্রসবিল সতী।।
 ইন্দ্রচন্দ্র সম কান্তি তেজ দিবাকর। 
 উজ্জ্বল করিল শতশৃঙ্গ গিরিবর।।
 দিবা দুই প্রহরেতে পুণ্য তিথিযুত।
 অতি শুভক্ষণেতে জন্মিল কুন্তীসূত।।
 সেইক্ষণে হইল দ্বনি আকাশ উপর।
 সকল ধার্ম্মিক শ্রেষ্ঠ এই সুতবর।।
 সত্যবাদী জিতেন্দ্রিয় হবে মহারাজা।
 জগতের লোকে তাকে করিবেক পূজা।।
 এতেক আকাশ বাণী শুনিয়া রাজন।
 কুন্তীরে ডাকিয়া পুনঃ বলেন বচন।।
 শুনিলা আকাশবাণী বলে দেবগণ।
 ধার্ম্মিক সুবুদ্ধি শান্ত হইবে নদন।।
 ক্ষত্রিয়প্রধান গণি বলিষ্ঠ কোঙর।
 ধার্ম্মিক গণি যে শ্রেষ্ঠ ব্রাম্ভণ ভিতর।।
 সে কারণে কুন্তী তুমি ভজ পুনর্ব্বার।
 যাঁহা হৈতে হইবেক বলিষ্ঠ কুমার।।
 রাজার বচনে কুন্তী তবে মনে মনে।
 দেবগণ মধ্যে দেখি বলিষ্ঠ পবনে।।
 মন্ত্র জপে কুন্তী করি বায়ুর উদ্দেশ।
 সেই ক্ষণে বায়ু তথা করিল প্রবেশ।।
 পবন সঙ্গমে পুত্র লভিল জনম।
 জন্ম মাত্র তাহার শুনহ বিক্রম।।
 পুত্র প্রসবিয়া কুন্তী কোলে লৈতে চায়।
 তুলিতে নারিল, ভারি পর্ব্বতের প্রায়।।
 অশক্ত হইয়া ফেলে পর্ব্বত উপরে।
 শতশৃঙ্গ পর্ব্বত কাঁপিল থর থরে।।
 শিলা বৃক্ষ গিরি শৃঙ্গ হৈল চূর্ণময়।
 বালকের শব্দে পায় গিরিবাসী ভয়।।
 সিংহ ব্যাঘ্র মহিষাদি যত পশুগণ।
 পর্ব্বত ত্যাজিয়া সবে গেল অন্যবন।।
 হেনকালে শূণ্যবাণী হয় ততক্ষণ।
 শুন কুন্তী পাণ্ডু এই তোমার নন্দন।।
 যতেক বলিষ্ঠ আছে পৃথিবী ভিতর।
 সবা হৈতে শ্রেষ্ঠ এই মহাবলধর।।
 নির্দ্দয় নিষ্ঠুর এই দুষ্টজন রিপু।
 অস্ত্রেতে অভেদ্য এই বজ্রসম বপু।।
 দেখিয়া শুনিয়া পাণ্ডু হইল বিস্ময়।
 আশ্চর্য্য মানিল কুন্তী দেখিয়া তনয়।।
 পুনরাপি কুন্তীরে বলেন নৃপবর।
 এইমত জন্ম হৈল যুগল কুমার।।
 এক হইল ধার্ম্মিক নির্দ্দয় আর জন।
 সর্ব্বগুণযুত এক জন্মাও নন্দন।।
 কুন্তী বলে হেন পুত্র হৈবে কেমনে।
 সর্ব্বগুণযুত পাব কার আরাধনে।।
 ইহা শুনি পাণ্ডু কহিলেন মুনিগণে।
 দেব মধ্যে আছে কোনজন সর্ব্বগুণে।।
 এত শুনি বলিল যতেক মুনিগণে।।
 সর্ব্বদেবগণ মধ্যে ইন্দ দেবরাজ।
 তাঁহারে সেবিলে রাজা সিদ্ধ হবে কাজ।।