পাতা:খাদ্যতত্ত্ব.djvu/৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চম অধ্যায় সৰুজি তাজা সৰুজি গ্রহণ না করিলে অচিরাৎ স্বাস্থ্য ভঙ্গ হয় । সবজী দ্বারা আমরা ষথেষ্ট পরিমাণে পটাস, চুণ প্রভৃতি আৰশুকীয় লৰণাদি পদার্থ প্রাপ্ত তই । উপযুক্ত পরিমাণে সবুজী গ্রহণ না করিলে কখনও কোষ্ঠ পরিষ্কার রাখা যায় না । শরীর রক্ষার্থে যেমন আহারের প্রয়োজন, অন্ত্রস্থ পরিত্যক্ত পদার্থ সরল ভাবে নির্গমও ঠিক তন্দ্রপ প্রয়োজনীয়। কোষ্ঠ কঠিন হইলে অগ্নিমন্দ্যি হয়, যন্ত্র সমূহ নিস্তেজ হয়, মনের অপ্রসন্নতা জন্মে এবং অচিরাং,ছরারোগ্য ব্যাধি আক্রমণ করে। তভিন্ন অনেক সবজী ঔষধের ক্রিরা করিয়া থাকে । তরকারী যথাসম্ভব তাজা হওয়া উচিত । কীট দষ্ট, শুষ্ক, নরম, দাগি ও মলিন তরকারী অতি নিকৃষ্ট । যে ব্যক্তি যত পরিমাণে মাছ মাংস অtহার করে, মোটামোটি, ইহার অৰ্দ্ধভাগ পরিমাণে তরকাকী গ্রহণ করা কৰ্ত্তব্য । অজীর্ণ রোগে শাক-সবুজি অপকারী । বিলাতী আলু রাসায়নিক খাদ্যগুণ— गांश्७s|- মেদকারিতাগুণ— শ্বেতসার ও শর্করা 8•영 প্রোটিড سیاه نج তৈল О“ У Cمياه ب छठ ७२०७ তরকারীর মধ্যে বিলাতী আলু সৰ্ব্বপ্রধান । আলু আয়লণ্ডে আমাদের দেশের ভাতের দ্যার প্রধান খাদ্য । ইহাতে বিলক্ষণ পরিমাণে শ্বেতসার প্রাপ্ত হওয়া যায়। অন্তান্ত তরকারীর অপেক্ষা ইহাতে প্রোটিডের পরিমাণও অধিক। কেহ কেহ বলেন ষে ভাত বা রুটার বদলে আলু ব্যবহার চলে। যাহারা যথেষ্ট পরিমাণে মাংস গ্রহণ না করেন, তাঁহাদের