পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/২৪৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দিব্যদটি - ఇ8'S যতীন বলিল, “আজ্ঞে না--তা—ঠিক জানিনে।" চায়ের জল ফুটিয়া উঠিয়াছিল, যতীন তিন পেয়ালা চা প্রস্তুত করিল। চা-পান করিতে করিতে সঞ্জীববাব জিজ্ঞাসা করিলেন, “সমরেনবাব বি-এ ত পাস করলেন, এবার তিনি কি করবেন ? আইন-ক্লাস জয়েন করবেন কি ?” “না, উকীল হবার তার ইচ্ছে নেই। এইবার এম-এ পড়বে।” “বাড়ীতে ওঁর কে আছে ?” “মা আছেন। কাকা-টাকা কাকী-টাকীও আছেন শুনেছি।” “ক’ ভাই ওঁরা ?” “ভাই-টাই কিছল নেই। একটি বোন আছে, তার বিয়ে হয়ে গেছে।" এই সময় সিড়িতে জনতার শব্দ হইল। যতীন বলিল, “এই বোধ হয় আসছে।” সুরেন্দ্র, যতীনের ঘরের সামনে আসিবামাত্র যতীন বলিল, “ওহে, এদিকে এস। এই ভদ্রলোক দটি তোমার সঙ্গে দেখা করবার জন্যে বসে আছেন।” "ওঃ, আচ্ছা—আমার ঘরে আসন।”—বলিয়া সরেন্দ্র অগ্রসর হইল। আগন্তুকবয় তাহার পশ্চাৎ পশ্চাৎ চলিলেন। ঘণ্টাখানেক পরে বাবরা বিদায় গ্রহণ করিলেন। যতীনের ঘরের সামনে আসিয়া সঞ্জীববাব বলিলেন, “আজ আসি তা হলে যতীনবাব। আবার দেখা হবে, নমস্কার।” —যতীন লক্ষা করিল, সঞ্জীববাবর মুখখানি হাসি হাসি। “আজ্ঞে, আসন, নমস্কার’— বলিয়া সে ইহাদের সঙ্গে সিড়ি পয্যন্ত গেল। তার পর দ্রতপদে সরেনের ঘরে গিয়া দেখিল, সরেন অত্যন্ত গভীরভাবে গালে হাত দিয়া বসিয়া আছে। বলিল, “ব্যাপার কি হে ?” সরেন চমকিয়া উঠিয়া যতীনের মুখপানে চাহিল। বলিল, “এরা কি জন্যে এসেছিলেন, তুমি জান যতীন ?" “পস্ট জিজ্ঞাসাই করেছিলম হে । উত্তর দেন নি, অন্য কথা পেড়ে আমার প্রশনকে চাপা দিয়েছিলেন। কিন্তু কি জন্যে এসেছিলেন, তা অনুমান করতে পারি। কুন্দমালার সঙ্গে তোমার বিয়ের সম্প্রবন্ধ করতে এসেছিলেন ত ?” সরেন্দ্র বলিল, “হ্যাঁ, কিন্তু কি আশ্চৰ্য্য কথা, বল দেখি !" “আশচষ" বইকি ?” “কিন্তু এর এক্সপ্ল্যানেশন কি ?” “আমি ত কিছুই খুজে পাইনে –কি হ’ল, তাই বল। রাজি হয়েছ ?” “হয়েছি। দেখ, যাই শুনলাম, উনি কৃষ্ণনগর থেকে এসেছেন, কুন্দমালার মামা, আমি যেন কি রকম হতভম্বব হয়ে গেলাম। যা যা বললেন, তাতেই আমি হাঁ বলে গেলাম । আসছে রবিবারে আমি কৃষ্ণনগর যাব মেয়ে দেখতে। . মেয়ে দেখে আমার পছন্দ হলে ওঁরা দেশে আমার কাকা-মশাইকে চিঠি লিখবেন, পরে যা যা করতে হয়, সব করবেন। আষাঢ় মাসেই বিয়েটা সেরে ফেলতে চান, কেন না, তার পরেই মেয়ের যোড়া বছর পড়বে। আচ্ছা যতীন, একটা জিনিষ তুমি লক্ষ্য করেছ?" “कि ?” “ওর ভাইয়ের চোখের তারা ? অতুলবাবা কুন্দ সম্বন্ধে যা বলেছিলেন, এরও অবিকল তাই। চোখের তারা কালো নয়, ফিকে বাদামী রঙের।” “ना छाई, उआघि उ रनप्ले जका कब्रिनि !” “আমি করেছি। কিন্তু যা-ই বল যতীন, অতুলবাবরে কিন্তু আশ্চৰ্য্য ক্ষমতা।” “ব্যাপার কি, অতুলবাবকে গিয়ে একবার জিজ্ঞাসা করলে হয় না? এখন ত কোনও কাজ নেই, চল না বাওয়া বাক তার বাসার। . একটু বেড়ানও হবে।” ●/>も