পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/৩৭৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


●●脚 श्रृंश्च-श्चनिक्षाश्णौ अयरअरब वथन नग्धा जधाण७ ए३ण, ठथन नजब श्रछ बाश्ब्रि श्ब्रा अकर्छ करृष्ट अरब প্রবেশ করিলেন। সেখানে একটি সামান্য চাষা লোকের গহে উপস্থিত হইয় আতিথ্য यहक्का झर्गब्रटणन । कृषक आनन्नभटन ठाँदाटक क्षाष्टब्र भिरष्ठ नन्ञठ एऍल । সেই কৃষকের কুটীরে সমস্ত রাত্রি অবস্থান করিয়া, পরদিন প্রভাত হইবামাত অলঙ্কাশ পমেরায় নগর ভ্রমণে বাঁহগত হইলেন। এইরপে কয়েক দিবস অতিবাহিত হইল। প্রশ্নের উত্তর কি, সে বিষয়ে বাদশাজাদা বহন অনুসন্ধান করিলেন, কিন্তু কিছই কলকিনারা পাইলেন না। এইরপে দুঃখিত অন্তঃকরণে নগরে ভ্রমণ করিতে করিতে একদিন মেহেরগেজের মহালের নিকট উপস্থিত হইলেন। সেই মহালের চতুদিক উচ্চ প্রাচীরে ষেরা। বারে সশস্ত্র সৈন্যগণ পাহারা দিতেছে। রাজকুমারের মনে প্রবল ইচ্ছা হইল, একবার কোনও মতে ইহার ভিতর প্রবেশ কারবা মেহেরগেজকে দেখিতে হইবে। না জানি সে কি রপ, যাহার লালসার উন্মত্ত হইয়া এত বাদশাহ এবং বাদশাজাদা প্রাশ দিল । এইরুপ চিন্তা করতে করিতে রাজকুমার সেই প্রাচীরের চতুদিকে পরিভ্রমণ করিতে লাগিলেন। রাজকুমার ভাবিলেন, যদি কোথাও গোপন পথের সন্ধান পাই ত প্রবেশ করি। চতুদিকে ভ্রমণ করিতে করিতে দেখিলেন, একস্থানে একটি কৃত্রিম নদী মহালের ভিতর হইতে, প্রাচীরের নিম্নদেশ দিয়া বহিয়া, বাহির হইয়া আসিতেছে। সৰোগ পাইয়া সেই কৃত্রিম নদীতে বাদশাজাদা অবতরণ করলেন এবং ডুব দিয়া, প্রাচীরের নিম্নপথে ভিতরে প্রবেশ করিলেন। প্রবেশ করিয়া রাজকুমার দেখলেন, সে স্থান একটি মনোহর প্রমোদ কানন। নদীর দই পাবে হরিম্বণ বাক্ষরাজি ও লতাপম্প শোভায়মান, ত হার ছায়া নদীর নিন্মল জলে পড়িয়া দ্বিতীয় প্রমোদ কাননের সন্টি করিয়াছে। বক্ষে বক্ষে বলবল পক্ষী বসিয়া ঐক্যতানবাদন করিতেছে। ফলে ফলে ভ্রমরেরা গঞ্জেন করিয়া মধুপান করিয়া বেড়াইতেছে। কোকিল ও কোকিলাগণ পরপরের মনোহরণ করিবার জন্য অপবে: সঙ্গীতধননিতে আকাশমাগ" পরিপ্লাবিত করিতেছে। g তখন সেখানে কেহই ছিল না। রাজকুমার এক স্থানে রৌদ্রে বসিয়া নিজ গাত্র ও পরিধেয় বস্ত্র শকে ইয়া লইলেন। তাহার পর সাবধানে প্রমোদ কাননের ভিতর অগ্রসর হইলেন। ক্লমে দেখিতে পাইলেন, তাঁহার নিকট হইতে অনতিদরে পরীসদৃশ কয়েকটি কন্যা বসিয়া আছে। কিংখাব নিমিত একটি সন্দব ফরাস, তাহার উপর রত্ন সিংহাসন। সেই সিংহাসনে দিব্যাঙ্গনা সদশে একটি কন্যা বসিয়া, তাহারই চতুপাশে পরীসদৃশ সখিগণ বসিয়া আছে। অনুমান বঝিলেন, সিংহাসনস্থিতা কন্যা মেহেরগেজ হইবে। সেই সন্দেরীর আগের লবণে সমস্ত প্রমোদ কানন যেন উদ্ভাসিত। তাহার কেশদামের সৌগন্ধ কুসমগন্ধকেও পরাজিত করিয়াছে। দেখিয়া রাজকুমার ভাবিলেন, বিধাতা যাহাকে এরপে রপেলাবণ্যের অধিকারিণী করিয়াছেন, সে কেন এমন নিষ্ঠরবৎ সহস্ৰ প্রাণী হত্যা করিতেছে ? রাজকুমার মনে মনে এইরুপ চিন্তা করিতেছেন, এমন সময় একজন সখী একটি সবগ নিমিত পেয়াল হস্তে করিয়া নদী হইতে জল লইতে আসিল। তাহাকে আসিতে দেখিয়া রাজকুমার স্বরিতপদে বক্ষের অন্তরালে লক্কোইত হইলেন। সেই সখী নদীতে পেয়ালা ডবাইবার সময় দেখিল, জলে এক অপরুপ রাপবান পরেষের ছায়া। সেই D DDBDD B BBDD BBB BB BBB DDDD DDD BB BBB BB BBB DD DBD BBDS DDD D BB BBBD DD DBB DD BBD DDTS DB কাঁপিতে কাঁপতে সে সামিনীর সমীপে ফিরিয়া গেল। সেখানে গিয়া সে সকল বিবরণ DDDD DDDS BDD DBBBBD DDu DBD DBD DDDSBB C 00Y