পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/৩৮৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গল বেগমের আশ্চৰ্য্য গল্প C) করিতে না পারিয়া অনেক দর অবধি তাঁহার সঙ্গে সঙ্গে গেলেন। পরে সাশ্র-নয়নে বিদায় গ্রহণ করিয়া আপনার শান্য গহে ফিরিয়া আসিলেন। এদিকে রাজকুমার সমস্ত দিবস চলিয়া সফহাপথিৰ নামক স্থানে উপনীত হইলেন। সেখানে দইটা মাগ" দেখা গেল। তখন জমিলাবানর কথা স্মরণ করিয়া, রাত্রির জন্য সেইখানেই বিশ্রামের আয়োজন করিলেন। অলপ রাত্রি হইলে বহুসংখ্যক পশন সেখানে চরিতে আসিল। বাদশাজাদা তাহাদের মধ্যে কয়েকটিকে বধ করিয়া আপনার পাবে রাখিযা দিলেন। যখন অন্ধ্যরাত্রি সমাগত হইল, তখন সেই বন হইতে সমস্ত পণ, চলিয়া গেল। ক্ৰমে আশী হাত লক্ষবা ব্যাঘ্ররাজ আসিয়া দশন দিল। মনুষ্যচক্ষ কখনও সেরাপ ব্যাঘ্র অবলোকন করে নাই। বাদশাজাদা সাহসপবেক ব্যায়ের নিকটে গিয়া তাহাকে সেলাম করিলেন এবং বান প্রদত্ত রমাল দিয়া ব্যান্ত্রের সমস্ত শরীব হইতে বনের ধলা ঝাড়িয়া দিলেন। পরে শিকারেব পশ তাহাকে ভক্ষণ করিতে দিলেন। ব্যাঘ্র পরম আনন্দে সেই মাংস ভক্ষণ কবিতে লাগিল। রাজকুমার হাত যোড় করিয়া ব্যান্ত্রের সমখে দাঁড়াইয়া রহিলেন। আহার শেষ হইলে রাজকুমার সেই রমাল দিয়া ব্যাঘ্রের মখ ভাল করিয়া মছিয়া দিলেন। অন্যান্য ব্যাঘ্রগণ পবিত্যক্ত মাংস ভোজন করিতে লাগিল। আহারান্তে ব্যাঘ্ররাজ পরম আপ্যায়িত হইয়া রাজকুমারের কোলে মাথা দিয়া শয়ন করিল। বলিল—“তুমি নিভয়ে এখানে থাক। কোনও জন্তু তোমার হিংসা না করে, আমি এমন হুকুম দিতেছি। সমস্ত পথ আমার বাঘেরা তোমার রক্ষণাবেক্ষণ করবে।” কিয়ৎক্ষণ বিশ্রাম করিয়া ব্যাঘ্ররাজ প্রস্থান করিল। রাজপত্রকে রক্ষা করিবাব জন্য একটি ব্যাঘ্রকে রাখিয়া গেল। ষষ্ঠ পরিচ্ছেদ পরদিন প্রভাত হইবামার বাদশাজাদা অশব ধাবিত করিলেন। কিছর দরে গিয়া দেখিলেন যে সম্মখে দুইটি পথ। ভাবিলেন, বামদিকের পথে কিতর বিপদ, দক্ষিণদিকের পথেই যাই। ঈশ্বরের নাম স্মরণপত্ৰবক তাহাই করিলেন। দই তিন দিন সেই পথে যাইয়া সম্মখে এক প্রকাণ্ড দাগ দেখিতে পাইলেন। সেই দগের প্রত্যেক বরজে তোপ সজিত রহিয়াছে। দগাবারে বহুবিধ যন্ধাসের সজিত হইয়া হাবসী সৈন্যগণ পাহারা দিতেছে। রাজকুমার ধীরে ধীরে সেই দগের বারদেশের নিকট আসিয়া, অশব হইতে অবতরণ করিয়া, জিনপোষ বিছাইয়া রাত্রির জন্য বিশ্রামের বন্দোবস্ত করিলেন । এমন সময় কয়েকজন হাবসী আসিয়া রাজকুমারকে দেখিয়া আনন্দে নত্য করিতে লাগিল । বলিতে লাগিল—“ভাই সকল আজ বড় শুভদিন। একজন মনুষ্য আসিয়াছে। অামাদেব বাদশাহ তুমিতাক মনষ্যের মাংস বড়ই ভালবাসেন। ইহাকে ধরিয়া তাঁহার কাছে লইয়া গেলে আমাদের সকলের ভাল বখশিস মিলিবে ।” ஆத் ইহা বলিয়া দশ-বারোজন হাবসী রাক্তকুমারের কাছে আসিয়া তাঁহাকে ধরতে চাহিল। রাজকুমার ধীরে ধীরে সালেমান তরবারি বহির করিয়া, এক আঘাতে হাবসীগণকে যমালয়ে প্রেরণ করিলেন। দগাবার হইতে সৈন্যগণ এই ব্যাপার দেখিয়া কয়েকজন সশস হাসবীকে পাঠাইয়া দিল। সালেমানি তরবারির প্রভাবে রাজকুমার তাহাদিগকেও মহত্তের মধ্যে ধংস করিয়া క్షాణా శా శా శా కాగి గా గా శా శా శా | তুমিতাক বাদশাহ এই সংবাদ শ্রবণ করিয়া আগনের মত জনলিয়া উঠিলেন। নিজ