পাতা:গীতা-গ্রন্থাবলী (উপেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়).djvu/৩৬৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


లి(ు শিব গীতা । বালাগ্ৰমাত্ৰং হৃদয়স্ত মধ্যে, বিশ্বেদেবং জাতবেদং বরেণ্যম্। 皺 সামাত্মস্থং যেস্থ্যুপগুস্তি ধীরাস্তেষাং শান্তি: শাশ্বতী নেতরেষামূ ॥ ৪৬ ৷ অহং যোনিমধিতিষ্ঠামি চৈকো, ময়েদং পূর্ণং পঞ্চবিধং চ সৰ্ব্বম্। মামীশানং পুরুষং দেবমিখং, বিচার্যমাণং শান্তিমত্যন্তমেতি ॥ ৪৭ ৷ প্রাণেঘন্তর্মনসে লিঙ্গমাহুর্যস্মিন্নশনায়া চ তৃঞ্চাই ক্ষমা চ । তৃষ্ণাং ছিত্বা হেতুজালস্ত মূলং, বুদ্ধ্য চিত্তং স্থাপয়িত্ব মল্লাহ। এবং মাং যে ধ্যায়মানা ভজস্তে, তেষাং শাস্তি: শাশ্বতী নেতরেষামূ ॥ ৪৮ যতো বাচো নিবর্তস্তে অপ্রাপ্য মনসা সহ । আনন্দং ব্রহ্ম মাং জ্ঞাত্বা ন বিভেতি কুতশচন ॥ ৪৯ ॥ ষে ধীর পুরুষগণ কেশগ্রপ্রমাণ, হৃদয়মধ্যবৰ্ত্তী, বিশ্বস্বরূপ, জাতবেদরুপ, বরণীয় আমাকে বুদ্ধিস্থরূপ অর্থাৎ বুদ্ধি-প্রতিবিম্বিত ভাবে- সাক্ষাৎ করে, তাহাদিগের মোক্ষসুখ আবিস্তৃত হইয়া থাকে, আর যাহার ভেদদশা, তাহারা সেই সুখলাভে সমর্থ হয় না ॥ ৪৬ ॥ এক আমিই সমস্ত অধিষ্ঠান আশ্রয় করিয়া রহিয়াছি, অামা দ্বারাই এই পঞ্চভূতাত্মক সমস্ত পরিপূর্ণ রচিয়াছে। যিনি এই প্রকারে পরমেশ্বর পুরুষ জামাকে বিচার করিতে পারেন, তিনি অত্যন্ত শান্তি অর্থাৎ মোক্ষ প্রাপ্ত হয়েন ॥ ৪৭ ৷৷ প্রাণ ও বহিরিন্দ্রিয়ের মধ্যেই মনের বৃত্তিরূপ চিহ্ন পরিলক্ষিত হয়, এই মনেই বুভূক্ষ, তৃষ্ণা ও অক্ষমা বিদ্যমান আছে, অতএব মনোনিগ্ৰহ অবগুষ্ট কর্তব্য । যিনি শুভাশুভ ফলহেতুক ধৰ্ম্মধৰ্ম্মাদির মূগীভূত তৃষ্ণাকে উচ্ছিন্ন করিয়! আমাতে চিত্ত সংস্থাপনপূৰ্ব্বক পূর্বোক্ত রীতি অনুসারে আমার ধ্যান করত ভজনা করেন, তিনি শাশ্বত মোক্ষ. লাভ করিয়া থাকেন, অন্যে তাহা লাভে সমর্থ হইতে পারে না ॥ ৪৮ ॥ ৰাহকে মন ও বাক্য বিষয় করিতে পারে না অর্থাৎ মন বাহাকে চিন্তাধ্যানাদি করিতে সমর্থ নয়, বাক্যও যাহাকে নির্দেশ করিতে অসমর্থ, সেই জাননময় ব্ৰহ্মস্বরূপ আমাকে জানিতে পারিলে আর সংসারাদি কিছুরই ভয় থাকে না ৷৷ ৪৯ ৷