পাতা:গোরা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।


জানিস ? ছোটো ছেলেকে বুকে তুলে নিলেই বুঝতে পারা যায় যে, জাত নিয়ে কেউ পৃথিবীতে জন্মায় না। সে কথা যেদিন বুঝেছি সেদিন থেকে এ কথা নিশ্চয় জেনেছি যে, আমি যদি খৃস্টান ব'লে, ছােটো জাত ব'লে কাউকে ঘৃণা করি তবে ঈশ্বর তােকেও আমার কাছ থেকে কেড়ে নেবেন। তুই আমার কোল ভরে আমার ঘর আলাে করে থাক, আমি পৃথিবীর সকল জাতের হাতেই জল খাব।

 আজ আনন্দময়ীর কথা শুনিয়া বিনয়ের মনে হঠাৎ কী একটা অস্পষ্ট সংশয়ের আভাস দেখা দিল। সে একবার আনন্দময়ীর ও একবার গােরার মুখের দিকে তাকাইল, কিন্তু তখনই মন হইতে সকল তর্কের উপক্রম দূর করিয়া দিল।

 গােরা কহিল, “মা, তােমার যুক্তিটা ভালাে বােঝা গেল না। যারা বিচার করে শাস্ত্র মেনে চলে তাদের ঘরেও তাে ছেলে বেঁচে থাকে, আর ঈশ্বর তােমার সম্বন্ধেই বিশেষ আইন খাটাবেন এ বুদ্ধি তােমাকে কে দিলে।”

 আনন্দময়ী। যিনি তােকে দিয়েছেন বুদ্ধিও তিনি দিয়েছেন। তা, আমি কী করব বল ! আমার এতে কোনাে হাত নেই। কিন্তু, ওরে পাগল, তাের পাগলামি দেখে আমি হাসব কি কাঁদব তা ভেবে পাই নে। যাক, সে-সব কথা যাক। তবে বিনয় আমার ঘরে খাবে না?

 গোরা। ও তাে এখনই সুযােগ পেলেই ছােটে, লােভটি ওর যােলাে আনা। কিন্তু মা, আমি যেতে দেব না। ও যে বামুনের ছেলে, দুটো মিষ্টি দিয়ে সে কথা ওকে ভােলালে চলবে না। ওকে অনেক ত্যাগ করতে হবে, প্রবৃত্তি সামলাতে হবে, তবে ও জন্মের গৌরব রাখতে পারবে। মা, তুমি কিন্তু রাগ কোরাে না। আমি তােমার পায়ের ধুলো নিচ্ছি।

 আনন্দময়ী। আমি রাগ করব ! তুই বলিস কী। তুই যা করছিস এ তুই জ্ঞানে করছিস নে, তা আমি তােকে বলে দিলুম। আমার মনে এই কষ্ট রইল যে, তােকে মানুষ করলুম বটে কিন্তু- যাই হােক গে, তুই যাকে ধর্ম বলে বেড়াস সে আমার মানা চলবে না- নাহয়, তুই আমার ঘরে আমার

২৫