পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১০০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক কী কথা বলিছে কিছু নারি বুঝিবারে, এর কোনো কুল অাছে ? সৌন্দর্যপাথারে যে বেদনা-বায়ু-ভরে ছুটে মনতরী, সে বাতাসে, কত বণর মনে শঙ্কা করি ছিন্ন হয়ে গেল বুঝি হৃদয়ের পাল । অভয়-আশ্বাস ভরা নয়ন বিশাল হেরিয়া ভরসা পাই, বিশ্বাস বিপুল জাগে মনে—আছে এক মহা উপকূল এই সৌন্দর্বের তটে, বাসনার তীরে মোদের দোহার গুহ । হাসিতেছ ধীরে চাহি মোর মুখে, ওগো রহস্যমধুর । কী বলিতে চাহ মোরে প্রণয়বিধুর। সীমস্তিনী মোর । কী কথা বুঝাতে চাও । কিছু ব’লে কাজ নাই—শুধু ঢেকে দাও অামার সর্বাঙ্গমন তোমার অঞ্চলে, সম্পূর্ণ হরণ করি’ লঙ্ক গো সবলে অামার অামারে ; নগ্ন বক্ষে বক্ষ দিয়া অস্তুর-রহস্য তব শুনে নিষ্ট প্রিয়া । তোমার হৃদয়কম্প অঙ্গুলির মতে। আমার হৃদয়তন্ত্ৰী করিবে প্ৰহত, সংগীততরঙ্গধবনি উঠিবে গুঞ্জরি’ সমস্ত জীবন ব্যাপি থরথর করি” । নাইবা বুঝিল্প কিছু, নাইবা বলিন্স নাইব! গাথিন্স গান, নাইবা চলিক ছন্দোবদ্ধ পথে, সলজ হৃদয়খানি টানিয়া বাহিরে । শুধু ভুলে গিয়ে বাণী