পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৯৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


br8 চয়নিক। বিকারের মরীচিকা-জালে । অতল গম্ভীর তব অস্তর হইতে কহ সাত্বনার বাক্য অভিনব আষাঢ়ের জলদমন্দ্রের মতে ; স্নিগ্ধ মাতৃপানি চিন্তাতপ্ত ভালে তার তালে তালে বারম্বার হানি’, সর্বাঙ্গে সহস্রবার দিয়া তারে স্নেহময় চুমা, বলো তারে “শাস্তি । শান্তি ।” বলে তারে "ঘুমা, ঘুমা, ঘুমা ।” ( ১৭ চৈত্র, ১২৯৯ ) —সোনার তরী । মানস-সুন্দরী আজ কোনো কাজ নয় ;—সব ফেলে দিয়ে ছন্দোবন্ধগ্রন্থগীত—এসো তুমি প্রিয়ে, আজন্ম-সাধন-ধন সুন্দরী আমার, কবিতা, কল্পনা-লতা । শুধু একবার কাছে বসে। আজ শুধু কৃজন গুঞ্জন, , তোমাতে আমাতে শুধু নীরবে ভুঞ্জন । এই সন্ধ্য-কিরণের সুবর্ণ মদিরা,— যতক্ষণ অস্তরের শিরা উপশিরা লাবণ্য প্রবাহভরে ভরি’ নাহি উঠে, যতক্ষণে মহানন্দে নাহি যায় টুটে । চেতনাবেদনবিন্ধ, ভুলে যাই সব কী আশা মেটেনি প্রাণে, কী সংগীতরব গিয়েছে নীরব হয়ে, কী আনন্দস্বধা অধরের প্রান্তে এসে অস্তরের ক্ষুধা, :