পাতা:চেনা দায় - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

88

দারােগার দপ্তর, ৮৪ম সংখ্যা।


তিনি সেই নোটগুলি উত্তমরূপে পরীক্ষা করিয়া দেখিয়া লইয়া কহিলেন, “এখন আপনারা এই সকল গহনা লইয়া নিজ স্থানে প্রস্থান করিতে পারেন।”

 “তাঁহার এই কথা শুনিয়া গহনাসমেত সেই বাক্সটী লইয়া, আমরা সেই গৃহ হইতে বহির্গত হইলাম। তিনিও সেই নোটগুলির সহিত আমাদিগের সঙ্গে সঙ্গে সেই ঘর হইতে বহির্গত হইলেন, এবং অন্য দিকে প্রস্থান করিলেন।

 “রাস্তা হইতে একখানি গাড়ি ভাড়া করিয়া আমরা বাড়ীতে গমন করিলাম। বছিরুদ্দিন আমাকে আমার বাড়ীতে পৌঁছিয়া দিয়া আপন বাসায় গমন করিল। বাক্সসমেত সমস্ত গহনা আমার নিকটেই রহিয়া গেল। গমন করিবার সময় বছিরুদ্দিন বলিয়া গেল যে, কল্য পুনরায় আসিয়া আমার সহিত সাক্ষাৎ করিবে, এবং সেই সময় হইতে গহনাগুলি বিক্রয় করিবার বন্দোবস্ত ঠিক করিবে।

 “পরদিবস যে সময়ে বছিরুদ্দিনের আসিবার কথা ছিল, সেই সময়ে বছিরুদ্দিন আর আগমন করিল না। সমস্ত দিবস তাহার অপেক্ষায় বাড়ীতে বসিয়া রহিলাম; কিন্তু সে আর সেইদিবস আসিল না। পরদিবসেও সেইরূপ হইল। এইরূপে ক্রমে এক সপ্তাহ অতিবাহিত হইয়া গেল। বছিরুদ্দিনকে আর দেখিতে পাইলাম না। মনে করিলাম, হয় ত সে পীড়িত হইয়া পড়িয়াছে। তাহার বাড়ী যে কোথায়, তাহা আমি জানিতাম না। সুতরাং সেই স্থানে গমন করিয়া তাহার কোনরূপ যে সন্ধান করিব, তাহাও হইল না। এইরূপে ক্রমে পনরদিবস অতিবাহিত হইয়া গেল।