পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/১৫৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পদাবলী—বিবিধ পদকৰ্ত্ত—১৫-১৮শ শতাব্দী। >> >> জানিরে তোর মায়ের প্রেম যত ভালবালে। অল্প ননীর তরে বান্ধ্যাছিল গাছে ॥ যমল-অৰ্জ্জুন যখন চাপ্যাছিল গায়। তখন তোর মা নন্দরাণী আছিল কোথায় ॥ শ্ৰীদাম কহিছে বাণী শুন ওগো নন্দরাণী নিতি নিতি যাই মোরা বনে। যতেক রাখাল মেলি মাঝে রাখি বনমালী ধেনু বৎস চরাই কাননে ॥ মোহন মুরলী-স্বরে নানা ছন্দে গান করে ভুবন ভুলাএ সেই রবে। শুনিয়া মুরলী-রব দিব্য-মূৰ্ত্তি লোক সব আসি দরশন করে সভে ॥ হংসের উপরে চড়ি চতুর্মুখে মন্ত্ৰ পড়ি স্তব করে কানায়ার চারি পার্থে। তার পরে এক রথে ঐরাবতে বজ্ৰ হাতে দেখি মোরা পালাই তরাসে ॥ ক্ষিপ্ত-প্রায় একজন বৃষ-পৃষ্ঠে আরোহণ দিয়া শিঙ্গা ডস্তুর নিশান। শিরে জটা ত্রিলোচন ভস্ম অঙ্গে বিভূষণ সদাই জপয়ে রাম-নাম ॥ তার বামে এক নারী তুলনা দিবারে নারি রূপে অন্ধকার নাশ করে। স্বর্ণ-কান্তি শশিমুখী ভালে শোভে তিন আখি কোলে করি রহে গিরিধরে। কোলে লয়্যা গিরিধরে ননী খাওয়ায় দশ করে কতই ননী খায় তার করে । বলে ওরে বাছা কানু আনন্দে চরাও ধেনু কাননে নাহিক ভয় তোরে ॥ এ দাস শ্ৰীদামে কয় মা তুমি না কর ভয় কামু গেলে যত সুখ পাই। শীতল তরুর ছায় বসিয়া মুরলী বায় মোরা সভে ধবলী (১) চরাই ॥ পুরুষোত্তম । “বঙ্গভাষা ও সাহিত্যের” ৩০৪ পৃষ্ঠা দ্রষ্টব্য। যেখানে শুতিয়া ধনী রাই। এত কহি কহই না পারি। চন্দ্রাবলী তাহ যাই ॥ মুরছি পড়ল তন্তু ঢারি ॥ রাইক হেরি আগেআন। ললিত কঁাদয়ে উচ্চৈঃস্বরে। নিঝরে ঝরয়ে নয়ান ॥ কোরে করি অঙ্গের ধূলা ঝাড়ে। কহয়ে ললিতা সঞে বাত । বিশাখারে করয়ে গঞ্জন । পুনহি আওব ব্ৰজনাথ ॥ পূরিল তোর মনের বাসন ॥ অব যৈছে জীবয়ে রাই। চিত্ৰপট দেখাইলে এনে । ঐছন রচহ উপাই ॥ সে সাধ পূরিল এত দিনে ॥ কো যদি কহে তছু ঠাম। ঐছন যত ব্ৰজনারী । শুনইতে আওব স্যাম ॥ রোঅত কুন্তল ফাড়ি ॥ (১) এখানে ‘ধবলী’ শব্দ গরুর সাধারণ সংজ্ঞাক্ৰপে ব্যবহৃত হইয়াছে ।