পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/২৩০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>>bペ তীর্থের কথা বলিতে যাইয়৷ ক্ৰন্দন । বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । শিরে হাত দিয়া কেহো চিরজীবী করে। সৰ্ব্ব-অঙ্গে হাথ দিয়া কেহে মন্ত্র পঢ়ে ৷ কেহো বক্ষে হাত দিয়া করে আশীৰ্ব্বাদ । গোবিন্দ শীতলানন্দ করুণ প্রসাদ ॥ হইলা আনন্দময় শচী ভাগ্যবতী। পুত্ৰ দেখি হরিষে না জানে আছে কতি ৷ লক্ষ্মীর জনক-কুলে আনন্দ উঠিল। পতি-মুখ দেখিয়া লক্ষ্মীর দুঃখ গেল। সকল-বৈষ্ণবগণ হরিষ হইলা । দেখিতেও সেই ক্ষণে কেহো কেহো গেল । সভারে করিলা প্রভু বিনয়-সন্তাষ । বিদায় দিলেন সভে গেলা নিজ-বাস ৷ বিষ্ণু-ভক্ত গুটি দুই চারি জন লৈয়া । রহঃ কথা কহিবারে বসিলেন গিয়া ৷ প্রভু বোলে বন্ধু-সব শুন কহি কথা । কৃষ্ণের অপূৰ্ব্ব যে দেখিল যথা যথা ॥ গয়ার ভিতর মাত্র হইলাঙ প্রবেশ । প্রথমেই শুনিলাঙ মঙ্গল-বিশেষ ॥ সহস্ৰ সহস্ৰ বিপ্র পঢ়ে বেদধ্বনি। দেখ দেখ বিষ্ণু-পাদোদক-তীর্থখানি। পূৰ্ব্বে কৃষ্ণ যবে কৈলা গয়া-আগমন। সেই স্থানে রহি প্ৰভু ধুইল চরণ ॥ যার পাদোদক লাগি গঙ্গার মহত্ত্ব । শিরে ধরি শিব জানে পাদোদক-তত্ত্ব ॥ সে চরণ-উদক-প্রভাবে সেই স্থান। জগতে হইল পাদোদক-তীর্থ নাম ॥ পাদপদ্ম-তীর্থের লইতে প্রভু নাম । অঝরে ঝরয়ে দুই কমল-নয়ান। শেষে প্রভু হইলেন বড় অসম্বর। কৃষ্ণ বলি কান্দিতে লাগিলা বহুতর ॥ ভরিল পুষ্পের বন মহাপ্রেম-জলে। মহাশ্বাস ছাড়ি প্রভু কৃষ্ণ কৃষ্ণ বোলে ৷