পাতা:বরেন্দ্র রন্ধন.djvu/১০৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চম অধ্যায়

  • মেখি পৰ্ব্ব (২) চড়চড়ী (নিরামিষ)

এক বা একাধিক আনাজ, মৎস্ত কিম্বা উভয় একত্রে তৈলে তেজপাত লঙ্ক ও মেথি ফোড়ন দিয়া আংসাইয়া মুণ, হলুদ সহ জলে সিদ্ধ করতঃ পশ্চাৎ তাহাতে কুঁচি লঙ্কা ও সরিষাবাটা মিশাইয়া শুকনা চড়চড়ে গোছ করিয়া নামাইলে "চড়চড়ী রাধা হইল। একাধিক আনাজ বা মংস্তাদির চড়চড়ীতে আনাজাদি একসঙ্গে না আংসাইয়া পৃথক পৃথক ভাবে পূৰ্ব্বে তেলে কষাইয়া লইতে হয়। আমিষ চড়চড়ীতে অতিরিক্ত পেয়াজ ফোড়ন দিলে আস্বাদন উৎকৃষ্ট হয়, এবং মোটা মাছের চড়চড়ীতে একটু শুক্লা লঙ্কাবাটা মিশাইলে তবে তাহার স্বাদ ও রঙ সুন্দর হয়। সরিষাবাটা সৰ্ব্বশেষে মিশাইতে হইবে, অর্থাৎ চিড়চড়ী রন্ধন শেয় হইলে উনান হইতে নামাইবার অব্যবহিত পুৰ্ব্বে মিশাইবে। কাঁচালঙ্ক সরিষাবাটার সহিত একত্রে বাটিয়া মিশাইতে পার, অথবা গোটা রাখিয়া চিরিয়া আলাহিদা ভাবে পূর্বেই ব্যঞ্জনে জল দেওয়ার পর ছাড়িয়া সিদ্ধ করিয়া লইতে পার। চড়চড়ীতে পিঠালি দিতে হয় না। নামাইয়া একটু সরিষার তেল মিশাইলে স্বাদ ভাল হয়।