পাতা:বাঙ্গলা ব্যাকরণ - লোহারাম শিরোরত্ন.pdf/২০৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

বাঙ্গলা ব্যাকরণ।

১৯৫

ছিঁড়িলে কাল, বিকল হৃদয় ডোবে শোকসাগরে, মৃণাল যথা জলে, যবে কুবলয়ধন লয় কেহ হরি।”

 অদ্ভূতরস।—আশ্চর্য্য বিষয় দর্শনাদি জন্য যে বিস্ময়াত্মক ভাবের উদয় হয়, তাহাকে অদ্ভুতস বলে। যথা; “একিলো একিলো, একি কি দেখিলো, এ চাহে উহার পানে। দেব কি দানব, নাগ কি মানব, কেমনে এল এখানে।”

 হাস্যরস।—বিকৃত আকার, বাক্য ও চেষ্টা দ্বারা যে রসোদয় হয়, তাহার নাম হাস্য রস। যথা; প্রশ্ন “দেখিতে সুন্দর বর দাদ্ সব গায়,” উত্তর “বিনা চক্রে শালগ্রাম শোভা নাহি পায়?”

 ভয়ানক রস।—যাহা হইতে মনে ভয় জন্মে, তাহাকে ভয়ানক রস বলে। যথা; পলাইতে না পেয়ে ফাঁফর হৈলা হর। কহিতে লাগিলা কম্পবান্ কলেবর। তোমরা কে মোরে কহ পাইয়াছি ভয়। কোথা গেল মোর সতী বলহ নিশ্চয়।”

 বীভৎস রস।—ঘৃণাজনক ভাবকে বীভৎস