পাতা:বিশ্বকোষ একাদশ খণ্ড.djvu/১৬১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাগুব [ ১৬১ ] পাণ্ডব জামাকে অক্তিচারমন্ত্রযুক্ত বরদান করিয়া কছিলেন, তুমি এই ৷ মঞ্চ ৰtয় যে যে দেবতাকে আহবান করিলে, তাহারা সকাম হউন, বা অকামই হউন, তৎক্ষণাৎ তোমার বশীভূত হইবেন এবং সেই সেই দেবতার প্রসাদে তোমার পুত্র হইবে। হে রাজন্‌ ! ব্রাহ্মণের বাক্য মিথ্যা হবার | নছে, এক্ষণে তাহার সময় উপস্থিত হইয়াছে। আপনার | ভস্থল পাইলে সেই মন্ত্রার কোন দেবতাকে আহ্বান | করিতে পারি ও তদনুরূপ কাৰ্য্য করিতে পারি। পাণ্ডু এই | কথা শুনিয়া কহিলেন, হে শুভে ! তুমি অল্পই এ বিষয়ে যত্নবর্তী | হs, এবং ধৰ্ম্মকে আহবান করিয়া সস্তানোৎপাদন কর, যেহেতু ধৰ্ম্মই দেবগণের মধ্যে পুণ্যায়। ধৰ্ম্ম আমাদিগকে কোন- | ক্রমে অধৰ্ম্মযুক্ত করিতে পরিবেন না এবং লোকেও মনে | করিবে যে, ইহা ধৰ্ম্মই হইয়াছে। ধৰ্ম্মপ্রদত্ত পুত্র নিশ্চয়ই ধাৰ্ম্মিক হইবে । পতিব্ৰত কুন্তী ভৰ্ত্তার এইরূপ বাক্য শুনিয়া । প্ৰণতিপূৰ্ব্বক তাহার আদেশাহুবৰ্ত্তিনী হইলেন। যখন কুন্তী শুনিলেন, গান্ধারী একধৎসর গর্ভধারণ করিয়াছেন, তখন তিনি গর্ভের নিমিত্ত অক্ষয়ধৰ্ম্মকে আহবানপুৰ্ব্বক i সত্বর তাঙ্গকে পুল করিলেন। অনস্তর মন্থপ্রভাবে ধৰ্ম্মদেব ! স্বৰ্য্যতুল্য বিমানে মারোহণ করিয়া কুম্ভীর সমীপে উপস্থিত হইয়া ঈষৎ হান্তপূর্বক কহিলেন, কুন্তি ! তোমাকে কি দিতে ; হইবে বল । কুন্তী ধৰ্ম্মদেবের নিকট পুত্র প্রাথন করিলেন । । অনন্তর কুন্তা যোগমূৰ্ত্তিধারী ধৰ্ম্মের সহযোগে সৰ্ব্বপ্রাণীর হিতকর পুত্র লাভ করিলেন। কাৰ্ত্তিকমাসের শুরু-পঞ্চমীতে চন্দ্ৰযুক্ত জ্যেষ্ঠ লক্ষত্রে অভিজিৎ নামক অষ্টমমুহূৰ্ত্তে বেল দ্বিতীয় প্রহরের সময়ে কুন্তী একপুর প্রসব করেন, এই পুত্র জন্মগ্রহণ করিবামাত্র আকাশবাণী হইল যে, পাণ্ডুর এই প্রথম পুত্ৰ ধৰ্ম্মপরায়ণ ব্যক্তিগণের মধ্যে শ্রেষ্ঠ, বিক্রান্ত, নবো হুম, ভূমণ্ডলের একাধিপতি, ত্রিলোকবিশ্রাত এবং “যুধিষ্ঠির’ নামে খ্যাত হইবেন । পাণ্ডু এই ধৰ্ম্মপরায়ণ পুত্র লাভ করিয়া পুনৰ্ব্বার কুন্তীকে কহিলেন, পণ্ডিতেরা ক্ষত্রিয়কে বলজ্যেষ্ঠ বলিয়া থাকেন, অতএব তুমি একটা বলবান পুত্র প্রার্থনা কর। অনন্তর কুন্তী ভৰ্ত্তার এই কথা শুনিয়া বায়ুকে আহবান করেন এবং তাহাকে পূজাদি করিয়া লজ্জাবনতমুখী হইয়া ঈষৎ হাস্তপূৰ্ব্বক কহিলেন, হে মুরোত্তম । আমাকে মহাকায় বলবান সৰ্ব্বদর্পপ্রভঞ্জন এক পুত্র প্রদান করুন। তাছাতে বায়ু হইতে মহাবাহু ভীমপরাক্রম উীম জন্মগ্রহণ করেন। তৎক্ষণাৎ আকাশবাণী হইল, এই বালক বলবানদিগের মধ্যে শ্রেষ্ঠ হইবে । ভীম জন্মগ্রহণ করিবামাত্র এক অদ্ভুত ঘটনা ছইল। কুন্তী ব্যাঘ্রশঙ্কায় উদ্বিগ্ন হুইয়া সহসা উৎপতিত হইলেন, তাহার ক্রোড়ে যে XI 8X - বৃকোদর সুপ্ত ছিলেন, তাহা তাহার জ্ঞান ছিল না । ভীম পৰ্ব্বতের উপর পতিত হইলে তাহার গত্রিম্পর্শে শিলাসকল একেবারে চুর্ণ বিচুর্ণ হইয়া গেল। পা ধু এই অদ্ভুত ব্যাপার দেখিয়া নিতান্ত হর্ধাৰিত হইলেন । ছুৰ্যোধন ও এই দিন জন্ম গ্রহণ করেন । পা ধু এই দুই পুত্র লাভ করিয়া পুনৰ্ব্বার চিস্তু করিতে লাগিলেন, কিরূপে অtল্প একটা অtণর প্রধান ও লোকশ্রেষ্ঠ পুত্র উৎপন্ন হয় । ইন্দ্র দেবগণের রাজ ও প্রপান, তিনি অপরিমেয় বল ও উৎসাহসম্পন্ন এবং তঁাচার বীর্য ও ছাতি অ প্রমের । অতএব ইঙ্গদ্বারা অার একটী পুত্র উৎপাদন করিলে আমার মনোরথ সফল হইতে পারে। তখন পা ধু ঋষিদিগের সহিত মন্ত্রণা করিয়া কুস্তীর সহিত এক বৎসর ইন্সের আরাধনা করেন, ইহাতে ইন্দ্র তুষ্ট হইয়া পাণ্ডুর অভিলষিত বর প্রদান করেন। তখন পাণ্ডু কুষ্ঠীকে কহিলেন, দেবরাজ ইন্দ্র পরিতুষ্ট হইয়াছেন, তোমার অভিলষিত পুত্র উৎপাদন কর । কুন্তী এই কথা শুনিয়া ইন্দ্রকে আহবান করিলেন, তাহাতে অর্জুনের জন্ম হইল । এই পুত্র জন্মিবামাত্র BBBBB BB BBBKKBB BBBB BBBS BBBBBBB হইল যে, এই পুত্ৰ কাৰ্ত্তীর্ষসদৃশ বীৰ্য্যবান, শিবিতুল্য পরাক্রমশালী ও পুরন্দর সদৃশ অজেয় । এই পুত্র সকল প্রকার সদগুণসম্পন্ন হষ্টয়া এই জগতীতলে বিশেষ খ্যাতি লাভ করিবে । অতঃপর আকাশমণ্ডলে তুমুল শব্দে দুন্দুভি ধ্বনি হইতে লাগিল, মহাকোলাহল শব্দ উঠিল, অনবরত পুষ্পবৃষ্টি হইতে আরস্ত হইল । অপৃদরোগণ নৃত্য করিতে লাগিল । নানা প্রকার শুভসূচক ঘটনাবলী উপস্থিত হইল । পরে পুনরায় পাণ্ডু পুত্রলোভে ধৰ্ম্মপত্নী কুন্তীকে নিয়োগ করিতে ইচ্ছা করিলেন । তাঙ্কাতে কুন্তী কহিলেন, ধৰ্ম্মবেত্তারা আপদকালেও চতুর্থ পুত্র প্রশংসা করেন না, কারণ চতুর্থ পুরুষ-সংসর্গে স্বৈরিণী এবং পঞ্চমপুরুষ সংসর্গে বেশু। হইয়া থাকে। হে বিদ্বন! আপনি এই ধৰ্ম্ম অবগত হইয়াও কি নিমিত্ত প্ৰমাদগ্রস্তের স্তায় উহা অতিক্রম করিয়া পুনৰ্ব্বার সস্তানের নিমিত্ত আমাকে বলিতেছেন। পাণ্ডু কুন্তীর এই ধৰ্ম্মসঙ্গত কথা শুনিয়া স্থির হইলেন ও পুত্রত্ৰয়ের সহিত দিন অতিবাহিত করিতে লাগিলেন । একদা মাদ্রী পাণ্ডুকে নির্জনপ্রদেশে পাইল্প কহিলেন, মহাভাগ ! ইহা আমার পরম দুঃখ যে, আমরা দুই সপত্নীই তুল্য, কিন্তু অধুনা ভাগাক্রমে কুন্তীতে আপনার পুত্র হইল । কুন্তী যদি আমার সম্ভানোৎপত্তির উপায় করিয়া দেন, তাহ। হইলে আমার প্রতি অনুগ্রহ প্রকাশ করা হয় এবং আপনারও