পাতা:বিশ্বকোষ একাদশ খণ্ড.djvu/৩১৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পালরাজবংশ বর্গকে পরাজয় করিয়াছিলেন। প্রায় ৯৫৪ শকে ( ১০৩২ খৃষ্টাব্দে ) মহীপালের পরাজয় ঘটে। প্রত্নতত্ত্ববিৎ কনিংহাম্ এই মহীপালের ৪৮শ বর্ষাঙ্কিত খোদিত লিপি পাইয়াছেন । তারানাথের মতে, মহীপাল ৫২ বর্ষ রাজ্য করেন । খোরাবীর বজ্রাসনবিহারের ধ্বংসাবশেষ হইতে এই মহীপালদেবের মুদ্রা পাওয়া গিয়াছে। তাহার রাজত্বকালে সুপ্রসিদ্ধ বৌদ্ধতান্ত্রিক দীপঙ্কর শ্রীজ্ঞান খ্যাতিলাভ করেন, মহীপাল তাহাকে বিক্রমশিলায় আহবান করেন এবং এখানকার সর্বপ্রধান আচাৰ্য্যপদে অভিষিক্ত করেন । তৎকালে বিক্রমশিলায় ৫৭ জন প্রধান পণ্ডিত অবস্থান করিতেন। মুর্শিদাবাদ প্রভৃতি নানাস্থানে মহীপালের প্রতিষ্ঠিত বহুতর পুষ্করিণী আছে । মুর্শিদাবাদের অন্তর্গত গয়সাবাদের নিকট মহীপাল’ নামে একটী অতি প্রাচীন গ্রাম আছে। প্রবাদ এইরূপ, এস্থানে মহীপালের রাজধানী ছিল ৩২ তিব্বতের বৌদ্ধ ঐতিহাসিকগণের মতে গোঁড়াধিপ মহীপাল ভোটরাজ লা-লামার সমসাময়িক । নয়পালদেল । ১ম মঙ্গীপালের পর নয়পালদেব রাজা হইলেন। মদনপালের তাম্রশাসনে ইনি বহুগুণশালী, স্নিগ্ধপ্রকৃতি, অমুরাগের আধার এবং বহুদিকে (রাজ্য) বিস্তারকারী বলিয়া থ্যাত হইয়াছেন । গয়ার কৃষ্ণদ্বারিক-মন্দিরে এই নয়পালের ১৫শ বর্ষে উৎকীর্ণ একথানি শিলালিপি পাওয়া গিয়াছে ॥৩৩ ঐজ্ঞান-অতীশের জীবনবৃত্তলেখক ভোটদেশীয় পণ্ডিতগণের মতে, এই নয়পালরাজ দীপঙ্কর শ্রীজ্ঞানকে প্রধান ইষ্টদেব বলিয়া ভাবিতেন, অনেক সময় বিক্রমশিলায় গিয়া তাহার পদতলে বসিয়া পরমার্থ উপদেশ শ্রবণ করিতেন। নয়পালের উৎসাহে ও শ্ৰীজ্ঞানের যত্নে এই সময় তান্ত্রিক মত গৌড়ের সৰ্ব্বত্র প্রচলিত হইয়াছিল। তিব্বত প্রভৃতি বহুদূর দেশ হইতে শত শত পণ্ডিত তান্ত্রিক উপদেশ লাভ করিবার জন্ঠ বিক্রম [ ৩১৫ ] শিলায় আগমন করিতেন। কি হিন্দু কি বৌদ্ধ সকলেই তান্ত্রিক তারাদেবী(শক্তি ?)-র উপাসনায় ও তাগ্নিক গৃঢ় (৩২) ঐ মহীপাল গ্রাম উত্তররাঢ়ের অন্তর্গত। রাজেন্দ্রচোড়ের খোদিত লিপিতেও আছে, মহীপাল উত্তররাঢ়ে রাজত্ব করিতেন। এই প্রমাণদ্বারা এবং বর্তমান মহীপাল গ্রামের নিকটবর্তী প্রাচীন গুপ ও ধ্বংসাবশেষ স্বারা ঐ গ্রামে যে এক সময় পালরাজধানী ছিল, তাহ অধিক সঙ্কলপয় বলিয়া বোধ হয় । এই মহীপাল গামের কিঞ্চিদধিক ৩ ক্রোশ ভূরে সাগরদীঘী নামে এক স্ববৃহৎ সরোবর আছে, উহাও মহীপালের কাঞ্জি ৰলিয়৷ তরতা লোকের বিশ্বাস । (**) Cunningham's Archæological Survey Reports, পালরাজবংশ সাধনে আগ্রহ প্রকাশ করিতে থাকে। শ্রীজ্ঞানের জীবনীলেখক লিখিয়াছেন, এই সময় কার্ণারাজের সহিত মগধাধিপ নয়পালের ঘোরতর সংগ্রাম উপস্থিত হইয়াছিল। প্রথমে মগধ-সৈন্যদলই শক্রহস্তে পরাজয় স্বীকার করে, শত্রগণ রাজধানী পৰ্য্যস্ত অগ্রসর হইয়াছিল। অবশেষে মগধাধিপ জয়লাভ করেন। শ্ৰীজ্ঞানের বিশেষ যত্নে সন্ধি হইয়া যায় এবং উভয় রাজা মিত্রতাপাশে আবদ্ধ হন। ঐজ্ঞান নয়পালকে যে সকল সারগর্ড উপদেশ প্রদান করেন, তাহ। শ্রীজ্ঞানের বিসলরত্নলেখন' নামক গ্রন্থে বর্ণিত আছে । ( এই গ্রন্থ তিব্বতীয় ভাষায় অনুবাদিত হইয়াছে ॥৩৪ ) নয়পালের রাজত্বকালে শ্ৰীজ্ঞান তিব্বত যাত্রা করেন এবং তথায় ১০৫৩ খৃষ্টাব্দে ইহলোক পরিত্যাগ করেন। ৩য় লিগ্রহপালদেল । নয়পালের পর তাম্রশাসনে ৩য় বিগ্রহপfলের নাম পাওয়া যায়। দিনাজপুরের অন্তর্গত আমগাছা হইতে এই ৩য় বিগ্ৰহপালের তাম্রশাসন পাওয়া গিয়াছে । মদনপালের তাম্রশাসনে লিখিত আছে,—যিনি সৰ্ব্বদা স্মররিপুর পূজায় অহরকু ছিলেন, যাহার বাহুবল সংগ্রামস্থলে দর্শিত হইত, তাধিক যুদ্ধকারী শত্রকুলের যিনি কালস্বরূপ, যিনি চারিবর্ণের আশ্রয়, র্যাহার যশোরাশিতে দিষ্মগুল ধবলিত হইয়াছিল। তাহার তাম্রশাসন হইতেই জানা যায়, তিনি বৌদ্ধধৰ্ম্মাবলম্বী হইলেও বেদান্ত-স্যায়-মীমাংসা প্রভৃতি শাস্ত্রবিদ ব্রাহ্মণকে শাসনদ্বারা গ্রাম দান করিয়াছেন । ২য় মহীপালজেব । মদনপালের তাম্রশাসন হইতে জানা যায়, বিগ্রহপালের পর তৎপুত্র ২য় মহীপাল রাজ্যারোহণ করেন। ইনি কীৰ্ত্তিপ্রভায় আনন্দিত ও বিশ্বগীত হইয়াছিলেন (৩৫ বাস্তবিক দিনাজপুরে ও রঙ্গপুরের নানাস্থানে দ্বিতীয় মহীপালের প্রতিষ্ঠিত গ্রাম ও শত শত সরোবর অtঙ্গও শোভা পাইতেছে । চৈতন্যদেবের আবির্ভাবের পূর্ব পর্যান্ত এই মহীপালের কীর্তিগাথ। বাঙ্গালার ঘরে ঘরে গীত হইত।৩৬ রঙ্গপুর অঞ্চলে প্রবাদ আছে, মহীপাল রাজা হুইবার কএক বর্ষ পরেই সন্ন্যাসধৰ্ম্ম অবলম্বন করেন ॥৩৭ Vol. III, plate xxxvii. and Proceedings Asiatic Seley of Bengal, 1873, p. 221. (98) Journal of the Iłuddhist Text Society, Vol. I. Part I. p. 31. SSDS SDDDBBBBBBSBBBBBBBSBBBDDDBS S BB BDS (৩৬) “যোগীপাল গোপীপাল মহীপালীত । DDS BBB BB BB BBBB SBBYYSDDD DDDDS (৩৭) অনেক বেীন্ধরাজাই সংসারে বৈরাগাপ্রযুক্ত সন্ন্যাসধৰ্ম্ম গ্রহণ কল্পিtठन, भां१िक$म ७ ठ९५ज cशालिम$tछद्र नैफ एश्प्ठ ठाशग्न षण्ष