পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তদশ খণ্ড.djvu/৭২৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বম্ববন্ধু , , ব্যাখ্যাগ্রন্থ সমাগু হইলে বহুবন্ধু পুরস্কায়স্বরূপ • • • স্বর্ণমুদ্র "পাইখা সেই গ্রন্থখানি কাবুলরাজ্যের অভিধৰ্ম্মমতানুবৰ্ত্ত মহাপণ্ডিতগণের সমীপে পাঠাষ্টয়া দেন এবং বলিয়া পাঠান যিনি তাহার মত থগুন করিবেন, তিনিই উক্ত পারিতোধিক পাইবেন। সেই গ্রন্থপাঠে বৌদ্ধ যতিগণ পরম পরিতুষ্ট হন এবং তাহাতে সেই পণ্ডিতসমাজ বৌদ্ধধর্মের এবংবিধ বিস্তার দেখিয়া বিশেষ আপ্যায়িত হন । উহায় গাথাংশে কতকগুলি দুৰ্ব্বোধ অংশ থাকায় তাহারা বসুবন্ধুকে তৎসমুদায়ের গপ্ত সঙ্কলম করিবার জন্ত প্রার্থনা জানান ও পায়িতোষিকস্বরূপ পুনরায় ৫• • স্বর্ণ মুদ্র পাঠাইরা দেন । অতঃপর বক্ষবন্ধু অভিধৰ্ম্মকোষ লিখিতে আরম্ভ করেন। এই গ্রন্থে তিমি সৰ্ব্বাস্তিবাদমতের বিশেষরূপ পোষকতা করিয়া ছিলেন এবং যে সকল মত স্থাপথভ্রষ্ট তাহাদিগের নিন্দ করেন। তাহাতে কাবুলের বৌদ্ধপণ্ডিতমণ্ডলীর সহিত তাহার ঘোর বিরোধ উপস্থিত হয় । পুৰ্ব্বকথিত অযোধ্যারাজ বিক্রমাধিত্যের পুত্র প্রাদিত্য ও তাহার মাত বম্বন্ধুর মকট হইতে বৌদ্ধধৰ্ম্মে দীক্ষাগ্ৰহণ করেন। পিতার মৃত্যুর পর প্রাদিত্য পিতৃসিংহাসনে অধিষ্ঠিত হইয়া বৃন্ধ মাতার অমুরোধে স্বীয় গুরুকে অযোধ্যায় আনাইয়া বাস করান । এপানে তীর্থক-সম্প্রদায়ভুক্ত ও প্রাদিত্যের ভগিনীপতি ব্রাহ্মণতনয় বসুরাত ব্যাকরণের মতানুসারে বসুবন্ধুকৃত কোষগ্রন্থের প্রতিবাদ প্রচার করেন । বসুবন্ধুও সপক্ষসমর্থনার্থ সেই প্রতিবাদের থগুল করিয়া একথানি গ্রন্থ রচনা করিয়াছিলেন । তাহাতে বৌদ্ধধৰ্ম্মে আস্থাবান রাজ পণ্ডিতবরকে লক্ষ এবং ধৰ্ম্মশীল রাজমাতা দুই লক্ষ স্বর্ণমুদ্রা পারিতোষিক দিয়াছিলেন । এই অর্থ লইয়া বসুবন্ধু কাবুলে, পুরুষপুরে এবং অযোধ্যায় তিনটী বুদ্ধমূৰ্ত্তি স্থাপন করিয়াছিলেন । বসুবন্ধুর এইরূপ প্রতিপত্তিবিস্তারে তীর্থকগণ অপ্রতিভ হইয়া পড়িলেন । তাছার গৰ্ব্ব থৰ্ব্ব করিবার জন্য তাহার সিংহভদ্র নামে একজন মহাপণ্ডিতকে অযোধ্যায় আনিলেন । উক্ত পণ্ডিতবর বসুবন্ধুকৃত কোষের মত খণ্ডন করিবার জন্তু ছুইখানি গ্রন্থ রচনা করেন। তন্মধ্যে ১০ সহস্র গাথাযুক্ত একখানি গ্রন্থে বৈভাষিকের ব্যাখ্যা প্রতিপাদিত হইয়াছিল। অপর খানি ১২ হাজার গাথায় লিখিত, উহাতে তীর্থকরাজ স্বীয় পক্ষ সমর্থন করিয়া অভিধৰ্ম্মকোষের বিপরীত অর্থ প্রতিপাদনে চেষ্টা পান । এই গ্রন্থদ্বয় সমাপনের পর, সিংহভদ্র বসুবন্ধুকে তর্কযুদ্ধে আহবান করিলেন, কিন্তু বক্ষবন্ধ আর বৃথা বাদামুবাদে প্রবৃত্ত হইলেন না । তিনি পণ্ডিতমণ্ডলীর নিকট উভয়ের বিশ্বস্তমতের ীিমাংসাভার অর্পণ করিলেন । [ १२७ ] বহুমতী, rm~~-- -سلطبم---م. --.---.---.--- কথিত আছে, বহুবন্ধ প্রথমে অষ্টাদশ শাখার ধৰ্ম্মমত আলোচনায় প্রবৃত্ত হইয়া হীনযানমতেরই পক্ষপাতী হইয়ছিলেন । তিনি প্রথমে মহাযানমতে বিশ্বাস স্থাপন করেন নাই। তিনি বলিতেন, প্রকৃত প্রস্তাবে ইহাতে বৌদ্ধমতের কিছুই নাই। পাছে তিনি মহাযানমত খণ্ডন করিয়া কোন গ্রন্থ প্রণয়ন করেন, এই ভরে অসঙ্গ স্বীয় ভ্রাতা বস্তুবন্ধুকে পুরুষপুরে আনয়নপুৰ্ব্বক তাহাকে মহাযান মতে দীক্ষিত করেন । তখন র্তাহীর মনে মহাযানমতের অযৌক্তিক সমালোচনার জন্ত পরিতাপ উপস্থিত হইল, তিনি নিজ জিহবা কাটিয়া ফেলিতে উপ্তত হইলেন । তাহার ভ্রাত এই সমরে বিশেষ অনুরোধপূর্বক তাহাকে এই দুৰ্ব্বিষহ কাৰ্য্য হইতে বিরত করেন এবং বলেন যে, ইহার পরিবর্তে তুমি বরং মহাযান মতের প্রতিপোষক কএকখানি গ্রন্থ লিথিয়া সাম্প্রদায়িক উন্নতির চেষ্টা কর । ভ্রাত কর্তৃক এইরূপে অনুরুদ্ধ হইয়া বসুবন্ধু অবস্তসক, নিৰ্ব্বাণ, সন্ধৰ্ম্মপুগুীক, প্রজ্ঞাপারমিতা,বিমলাকাষ্টি ও অন্তান্ত সূত্ৰগ্রন্থের টীকা রচনা করেন । ইহা ব্যতীত তিনি মহাযান মতের বিস্তারার্থ কএকখানি শাস্ত্র গ্রন্থ রচনা করিয়াছিলেন । অযোধ্যা নগরে অশীতি বর্ষ বয়ঃক্রমকালে বসুবন্ধু ভবলীলা সম্বরণ করেন । তিব্বতের তারানাথকৃত মগধরাজবংশেতিবৃত্ত পাঠে জানা যায় যে, পুৰ্ব্বজনপদাধীশ্বর ( বঙ্গরাজ্যেশ্বর ) শ্ৰীচন্দ্রের পুত্র রাজা ধৰ্ম্মচন্দ্রের সভায় বসুবন্ধু বিদ্যমান ছিলেন । বস্তুভ ( ক্লী) ধনিষ্ঠ নক্ষত্র । ( বু” স” ১•১৬ ) বড় ভরিত ( গ্রি । ধনপূর্ণ। বমুভাগ, এক জন প্রাচীন কবি । বঙ্গভূত ( পুং ) গন্ধৰ্ব্বভেদ । বস্তুভূতি (পুং) , বৈহুভেদ । (মন্ত্র ২৩২ টাকায় কুরক ) ২ ব্রাহ্মণভেদ । ( কথাসরিৎসা° ৭৩।২১৬ ) বহুভুদ্যান (পুং ) ১ সপ্তর্ষির মধ্যে একজন ঋষি । ২ বসিষ্ঠের পুত্রভেদ। “উদ্বাণী বস্তৃষ্ঠানো ছামান শক্ত দিয়োহপরে ॥"(ভাগ” ৪।১।৩৭) বসুমণ্ড (ত্রি । ধনযুক্ত, অর্থবান। বসুমতী (স্ত্রী ) বহুনি ধনরত্নানি সন্ত্যন্তাঃ ইতি বসু-মতুপ উীপ। পৃথিবী। “তদলং তদ্বপায়চিন্তয় বিপন্থৎপত্তিমতামুপস্থিতা। বসুধেয়মবেক্ষ্যতাং স্বয়া বসুমত্যা হি নৃপাঃ কলত্রিণঃ ॥ ( রঘু ৮৮৩ ) বসুমতীপতি (পুং ) বম্বমত্যাঃ পতিঃ । পৃথিবীপতি, রাজা । বসুমত্ত (স্ত্রী) বহু অন্তখে মতুপ, বহুমতো ভাব তল-টাপ । বসুমতের ভাব বা ধৰ্ম্ম, ধনৰণ্ড ।