পাতা:মহাত্মা কালীপ্রসন্ন সিংহ.djvu/১৪১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*Ե. মহাত্মা কালীপ্রসন্ন সিংহ । ബ്-്. ജാ যে বঙ্গভাষায় অমিত্রাক্ষর ছন্দের প্রবর্তক, সে বিষয়ে সন্দেহের কোনও কারণ নাই। পণ্ডিত রামগতি স্যায়রত্ন মহাশয়ের ‘বাঙ্গালা ভাষা ও বাঙ্গালা সাহিত্য বিষয়ক প্রস্তাবে’ লিখিত হইয়াছে যে, “মাইকেল যে অমিত্রাক্ষর ছন্দের প্রবর্তন করেন, কালীপ্রসন্ন সিংহই তাহ প্রথমে 'হুতোম প্যাচায় ব্যবহার করিয়াছিলেন ।” কিন্তু কালীপ্রসন্ন অমিত্রাক্ষর ছন্দের প্রবর্তক নহেন श्नन्त्रत बनिग्न उँीशब cशोबदब किङ्कमाख इंगि ফল। হইবে না । কারণ তিনিই বঙ্গবাসীকে মধুসূদনের প্রতিভা বিশ্লেষণ করিয়া দেখাইয়াছিলেন, এবং মেঘনাদবধের রচয়িতাঁকে ‘মহাকবি’ বলিয়া অভিনন্দিত করিয়াছিলেন। মেঘনাদবধের সমালোচনায় কালীপ্রসন্ন লিখিয়াছিলেন — “বাঙ্গল সাহিত্যে এবপ্রকার কাব্য উদিত হইবে বোধ হয়, সরস্বতীও স্বপ্নে জানিতেন না। ‘শুনিয়াছে বীণা-ধ্বনি দাসী, পিকবর-রব নব পল্লব মাঝারে সরস মধুর মাসে ; কিন্তু নাহি শুনি হেন মধুমাখা কথা কভু এ জগতে ' হায়! এখনও অনেকে মাইকেল মধুসূদন দত্তজ মহাশয়কে চিনিতে পারেন নাই। সংসারের নিয়মই এই প্রিয় বস্তুর নিয়ত সহবাস নিবন্ধন তাহার প্রতি তত আদর থাকে না, পরে বিচ্ছেদই তদ্‌গুণরাজির পরিচয় প্রদান করে ; তখন আমরা মনে মনে কত