পাতা:রকম রকম - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৪৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

৪৬

দারোগার দপ্তর, ৮২ম সংখ্যা।


আমার অবস্থা আপনাকে দেখান। এখন বিবেচনা-মত আপনি যাহা কহিবেন, তাহাই আমি আপনাকে প্রদান করিতে প্রস্তুত আছি। কারণ, আপনার পুত্ত্রের সদৃশ বিদ্বান্‌ পাত্রের হস্তে কন্যা সমর্পণ করিতে কোন্‌ ব্যক্তি পরাঙ্মুখ হয়েন? তবে আমার প্রতি একটু অনুগ্রহ করিবেন, এই প্রার্থনা।

 সনাতন। দেখুন মহাশয়। আমার পুত্ত্র নিজেই দশ হাজার টাকা পারিতোষিক পাইয়াছে। কন্যাটী যখন আমার একরূপ পসন্দ হইয়াছে, তখন টাকার নিমিত্ত আমি তত পীড়াপীড়ি করিব না। তবে এখন বিবেচনা মত আপনি নিজেই বলিয়া দিন, আপনি অলঙ্কার-পত্র প্রভৃতি সমস্ত দ্রব্যের জন্য মোট আমাকে কত টাকা দিতে পারিবেন?

 কন্যার পিতা। মহাশয়! সর্ব্বশুদ্ধ আমি এক হাজার পাঁচশত টাকা আপনাকে প্রদান করিব। ইহাতেই অনুগ্রহ করিয়া আমার উপর আপনাকে সদয় হইয়া, কন্যাদায় হইতে আমাকে উদ্ধার করিতে হইবে।

 সনাতন। অত কম টাকায় কিরূপে আপনি এইরূপ পাত্র পাইতে পারেন? আমি অধিক টাকা চাহিতেছি না, সর্ব্বশুদ্ধ আমাকে দুই হাজার পাঁচশত টাকা প্রদান করিবেন।

 সনাতনের এই কথা শুনিয়া কন্যার পিতা অনেক তোষামোদ করিয়া পরিশেষে সনাতনকে দুই হাজার টাকায় সম্মত করাইলেন।

 ক্রমে বিবাহের সমস্ত ঠিক হইয়া গেল। সনাতন কন্যাকর্ত্তার জাতি-কুল সম্বন্ধে একটু অনুসন্ধান করিয়া জানিতে পারিলেন, জাত্যাদির বিষয়ে কোনরূপ গোলযোগ নাই। কন্যার পিতাও সে সম্বন্ধে একটু অনুসন্ধান করিলেন, তিনিও