পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


२8 রবীন্দ্র-রচনাবলী তাহারে সামান্ত কথা গোপন করিলে পরে হৃদয়ে কি কষ্ট হয় হৃদয় তা জানে । এত তারে ভালবাসি, তবু কেন মনে হয় ভালবাসা হইল না আশ মিটাইয়া ! আঁধার সমুদ্রতলে কি যেন বেড়াই খুজে, কি যেন পাইতেছি না চাহিতেছি যাহা । বুকের যেখানে তারে রাখিতে চাই গো জামি সেখানে পাই নে ৰেন রাখিতে তাহারে— তাইতে অস্তর বুক এখনো পুরিতেছে না, তাইতে এখনো শূন্ত রয়েছে হৃদয় ।” কবির প্রণয়সিন্ধু ক্ষুদ্র বালিকার মন রেখেছিল মগ্ন করি অগাধ সলিলে— উপরে যে ঝড় ঝঙ্কা কত কি বহিয়া যেত নিম্নে তার কোলাহল পেত না শুনিতে, প্রণয়ের অবিচিত্র নিয়তনৃতম তবু তরঙ্গের কলধ্বনি শুনিত কেবল, সেই একতান ধ্বনি শুনিয়া শুনিয়া তার হৃদয় পড়িয়াছিল ঘুমায়ে কেমন । বনের বালিকা আহা সে ঘুমে বিহ্বল হোয়ে কবির হৃদয়ে রাখি অবশ মস্তক স্বর্গের স্বপন শুধু দেখিত দিবস রাতি, হৃদয়ের হৃদয়ের অনস্ত মিলন । বালিকার সে হৃদয়ে সে প্রণয়মগ্ন হৃদে, অবশিষ্ট আছিল না এক তিল স্থান— আর কিছু জানিত না, আর কিছু ভাবিত না, শুধু সে বালিকা ভাল বাসিত কবিরে । শুধু সে কবির গান কত যে লাগিত ভাল, শুনে শুনে শুনা তার ফুরাত না আর । শুধু সে কবির নেত্র কি এক স্বগীয় জ্যোতি বিকীরিত, তাই হেরি হইত বিহাল !