পাতা:রাজমোহনের স্ত্রী.djvu/৩৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Չ Ե রাজমোহনের স্ত্রী পরক্ষণেই একটু উচ্চকণ্ঠে উপস্থিত স্ত্রীলোকদের একজনকে সম্বোধন করিয়া মাধব কহিল, বড়বাড়িতে গিয়ে দেখ, সেখানে যদি খুড়ীমা থাকেন, তাকে এখনই আসতে বল । যদি তিনি আসতে ন চান, তারও কারণ জেনে এস । যষ্ঠ পরিচ্ছেদ মুদিতচক্ষু ব্যক্তি মাত্রই নিদ্রিত নয় ; প্রস্তর-প্রাচীরের মত মৃত্তিক-প্রাচীরেরও কান থাকে । আসুন পাঠক, আমরা মাতঙ্গিনীর নিকট ফিরিয়া যাই । স্বামী কর্তৃক কঠোরভাবে লাঞ্জিত হইবার পর সেক্ট যে তাহার পিসশাশুড়ী তাঙ্গকে তাহার শয়ন-কক্ষে টানিয়া আনিয়াছিলেন, তখন পর্য্যন্ত সে বাহিরে আসে নাই । দ্বার রুদ্ধ করিয়া আপনার যন্ত্রণায় মুহমান হইয়। সে পড়িয়া ছিল । বৃদ্ধ যথাসময়ে নৈশ আহার প্রস্তুত করিয়াছিলেন, কিন্তু তাহার এবং ননদী কিশোরীর সকল অনুরোধ-উপরোধই ব্যর্থ হইয়াছিল, সে বাহিরে আসিয়া খাইতে বসে নাই। র্তাহার শেষে হাল ছাড়িয়া দিয়া নিজের দুশ্চিন্ত লইয়। তাহাকে পড়িয়া থাকিতে দিয়াছিলেন । শয্যায় শুইয়া শুইয়া মাতঙ্গিনী ভাবিতেছিল, এষ্ট ভাবেই তাহাকে সার-জীবন দুঃখ-যন্ত্রণা ভোগ করিতে হইবে । সে জানিত তাহার স্বামী সে রাত্রে আর তাহার সহিত দেখা করিবে না ; তাহার প্রতি কুপিত হইলে এরূপ করাই তাহার স্বভাব। ইহাতে সে কতকটা খুশিই ছিল, কারণ একা থাকিতে পাইলে সে নিজের ভাবনা চিন্তা লইয়া নিরুপদ্রবে থাকিবে । রাত্রি গভীর হইলে বাটীর সকলে একে একে শয়ন করিতে গেল ।